দশমের মতো নির্বাচনের স্বপ্ন যারা দেখছে, তারা রাজনীতির কুলাঙ্গার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৫২ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৮

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-বাংলাদেশ জাসদ সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া বলেছেন, সাংবিধানিক ধারা সমতা গণতন্ত্র ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বাংলাদেশ জাসদ দৃঢ়তার সঙ্গে রাজনীতি করবে। দশম সংসদ নির্বাচনের মতো আর একটি নির্বাচনের স্বপ্ন যারা দেখছে, তারা গণতান্ত্রিক রাজনীতির কুলাঙ্গার। তাদেরকে রাজনীতি থেকে পরিত্যাগ করতে হবে।

রোববার রাজধানীর শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে মুক্তিযুদ্ধের ১১ নম্বর সেক্টর কমান্ডার শহীদ কর্নেল আবু তাহের বীরউত্তম স্মরণে বাংলাদেশ জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শরীফ নুরুল আম্বিয়া বলেন, জিয়াউর রহমান ক্ষমতা সংহত করার জন্য প্রহসনমূলক বিচার করে তাহের বীর উত্তম কে ফাঁসি দেয়। হত্যাকাণ্ড আইনসম্মত করার জন্য ফাঁসির ১০ দিন পর আইন সংশোধন করা হয়েছিল। জামাত-মুসলিম লীগ-স্বাধীনতা বিরোধী ও রাষ্ট্রপতি সায়েম ছিল জিয়ার সহযোগী। তাহের ছিলেন নির্ভীক বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং মহান দেশপ্রেমিক। সমাজ বদলের সংগ্রামে তার দৃঢ়চিত্ত নতুন প্রজম্মের জন্য প্রেরণাদায়ক হয়ে থাকবেন। কর্নেল তাহেরের জীবন ও সংগ্রাম থেকে শিক্ষা নিয়ে গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য নতুন প্রজম্মকে শপথ নিতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা এখনো গণতান্ত্রিক স্থিতিশীলতা অর্জন করতে সংগ্রাম করে চলছি। নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা নিয়ে বির্তক তৈরি করে সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেয়া হচ্ছে। সাংবিধানিক ধাবাহিকতায় আমাদের গণতন্ত্র রক্ষা করতে হবে।

বাংলাদেশ জাসদ সভাপতি বলেন, বেগম জিয়া ও তার দল বিগত নির্বাচনে অংশ না নিয়ে উপরন্তু সন্ত্রাস সৃষ্টি করে গণতান্ত্রিক ধারা থেকে নিজেদের বিচ্ছিন্ন করে ফেলেছে। আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে তারা সেই ভুল সংশোধন করতে পারে। ২১ আগস্টের হত্যাকাণ্ড, ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলা, জঙ্গি-সন্ত্রাসীদের মদদ দানের রাজনীতি প্রভৃতির জন্য দায়ীদের কর্মফল ভোগ করতে হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ জাসদের নিবন্ধন নিয়ে যে ষড়যন্ত্র চলছে তা মোকাবেলা করা হবে। আমরা সকল শর্ত পূরণ করে নিবন্ধনের জন্য আবেদন করেছি।

বাংলাদেশ জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক করিম সিকদারের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অংশ নেন ঐক্য ন্যাপ সভাপতি পঙ্কজ ভট্রাচার্জ, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, বাংলাদেশের ওয়াকার্স পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনিসুজ্জামান মল্লিক, গণতন্ত্রী পাটির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, বাংলাদেশ জাসদ স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মুশতাক হোসেন, কর্নেল তাহের হত্যা মামলার অন্যতম অভিযুক্ত সার্জেন্ট (অব.) রফিকুল ইসলাম বীরপ্রতীক, জাতীয় কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুর ইসলাম বাবু, সংগঠনের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি আবদুস সালাম খোকন, ঢাকা মহানগর পশ্চিম সহ-সভাপতি টুটুল সরকার প্রমুখ।

এইউএ/এমবিআর

আপনার মতামত লিখুন :