ড. কামাল সরকারের এজেন্ট : ইরান

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৩৩ পিএম, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীর ঘটিকা মিছিলকে কটাক্ষ করে ২০ দলীয় জোটের শরিক লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেছেন,ঝটিকা মিছিল করে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব নয়। একই সঙ্গে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেনকে সরকারের এজেন্ট বলে আখ্যা দেন তিনি।

শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৪টায় নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে আর্ন্তজাতিক মার্তৃভাষা দিবসে বাংলাদেশ লেবার পার্টি ঢাকা মহানগর আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

ইরান বলেন, প্রতিহিংসার শিকার বেগম খালেদার জিয়ার মুক্তির জন্য প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি কার্যকর কোনো আন্দোলন গড়ে তুলতে পারেনি। পুলিশের অনুমতি নিয়ে সমাবেশ বা ঝটিকা মিছিল করে বেগম জিয়ার মুক্তি সম্ভব নয়। কারান্তরীণ করার পরে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলতে পারলে সাত দিনেই মুক্তি পেতেন খালেদা জিয়া।

লেবার পার্টির চেয়ারম্যানের ভাষ্য, ‘বেগম খালেদা জিয়ার অবর্তমানে বিএনপি নেতৃত্ব শূন্যতা পূরণে সরকারের এজেন্ট ড. কামালের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্ট গঠন করে পাতানো ফাঁদে পা দিয়েছে। বেগম জিয়ার মুক্তির জন্য তৃণমূলের নেতাকর্মীরা আন্তরিক ও ঐক্যবদ্ধ হলেও নেতৃত্বহীনতার কারণে কার্যকর আন্দোলন গড়ে উঠছে না। বারবার প্রমাণিত হচ্ছে, বেগম জিয়ার বিকল্প কোনো নেতা বা নেত্রী নেই।’

ইরান বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সরকারের নীল নকশার নতুন সংস্করণ। আওয়ামী অপশক্তি ড. কামাল ও রবদের দিয়ে জাতীয়তাবাদী শক্তিকে নিয়ন্ত্রণ করছে। যতদিন ঐক্যফ্রন্ট থাকবে ততদিনে বেগম জিয়ার মুক্তি বা গণতন্ত্র, ভোটাধিকার পুনরুদ্ধার সংগ্রামে কার্যকর কোনো গতি আসবে না।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধ মানেই শহীদ জিয়া। যারা শহীদ জিয়াকে স্বাধীনতা ঘোষক মানে না, বেগম জিয়ার মুক্তি দাবি মুখে আনতে চায় না, তারেক রহমানের নিরাপদ স্বদেশ প্রত্যাবর্তন চায় না, তারা জাতীয়তাবাদী ও দেশপ্রেমিক শক্তির বন্ধু নয়, প্রকাশ্য দুশমন।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ বেগম জিয়াকে মুক্তি দিতে গ্রেফতার করেনি। রাজনৈতিকভাবে বেগম জিয়াকে মোকাবিলায় ব্যর্থ হয়ে গণতন্ত্রের লেবাসে বাকশাল প্রতিষ্ঠার জন্য ভিত্তিহীন মিথ্যা মামলায় কারান্তরীণ করেছে।

ইরান বলেন, রাজপথে দুর্বার আন্দোলন-সংগ্রাম ছাড়া বেগম জিয়াকে মুক্ত করা সম্ভব হবে না। তাই বিগত আন্দোলন-সংগ্রামের পরীক্ষিত জোট ২০ দলীয় জোটকে কার্যকর করে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করতে পারলেই বেগম জিয়া ও জনগণের মুক্তি সম্ভব হবে।

মহানগর উত্তর সভাপতি এস এম ইউসুফ আলীর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন লেবার পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব লায়ন ফারুক রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান মোসলেম উদ্দিন, অ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম রাজু, ঢাকা দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম-মহাসচিব নুরুল ইসলাম সিয়াম, হিন্দুরত্ন রামকৃষ্ণ সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদুল হাসান, আন্তর্জাতিক সম্পাদক খোন্দকার মিরাজুল ইসলাম, ছাত্র ও যুববিষয়ক সম্পাদক মেজবাউল ইসলাম সজিব, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মাওলানা তরিকুল ইসলাম সাদী, ঢাকা উত্তর সাধারণ সম্পাদক আরিফ সরকার, যুব মিশন আহ্বায়ক মোহেবুল্লাহ মেহেদী, ছাত্র মিশন সভাপতি সৈয়দ মো. মিলন, সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম ও প্রচার সম্পাদক হাফিজুর রহমান রিফাত প্রমুখ।

কেএইচ/এসআর/পিআর