সুরক্ষাসেবা বিভাগ সচিবের পেনাংয়ে কনস্যুলার সেবা পরিদর্শন

আহমাদুল কবির
আহমাদুল কবির আহমাদুল কবির , মালয়েশিয়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৪:২৩ পিএম, ০৭ জানুয়ারি ২০১৮

মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যে দূতাবাসের কনস্যুলার সেবা পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশ সরকারের সুরক্ষাসেবা বিভাগের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী। স্থানীয় সময় রোববার সকাল ১০টায় সরকার নিয়ন্ত্রিত অগ্রণী রেমিটেন্স হাউস পরিদর্শনে যান তিনি।

এ সময় রাষ্ট্রদূত মুহ. শহীদুল ইসলাম, শ্রম কাউন্সিলর মো. সায়েদুল ইসলাম, পাসপোর্ট বিভাগের প্রকল্প পরিচালক সাইদুল ইসলাম খান, কমার্শিয়াল উইং প্রধান ধনঞ্জয় কুমার দাস, পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার প্রথম সচিব মো. মশিউর রহমান তালুকদার তার সঙ্গে ছিলেন।

পরিদর্শনকালে সচিব নিজ হাতে প্রবাসীদের হাতে পাসপোর্ট তুলে দেন। এ সময় প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, কোনোভাবেই আপনারা দালালের স্মরণাপন্ন হবেন না। হাইকমিশনে দালালদের ঘেঁষতে দেয়া হচ্ছে না। ডিজিটাল পাসপোর্ট তৈরি এবং নবায়ন থেকে শুরু করে সব সেবাই আপনারা পাবেন। হাইকমিশনের প্রতিটি কর্মকর্তা-কর্মচারী আপনাদের সেবা প্রদানে প্রস্তুত রয়েছেন।

এর আগে গত শুক্রবার মালয়েশিয়ার ১৬৬ জালান বেসার, আমপাংয়ে অবস্থিত পাসপোর্ট বিতরণ কেন্দ্র পরিদর্শন এবং প্রবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন সচিব ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী।

এক প্রশ্নের জবাবে রাষ্ট্রদূত মুহ. শহীদুল ইসলাম বলেন, দূতাবাস ছাড়াও মালয়েশিয়ার প্রত্যেকটি প্রদেশে গত এক বছর ধরে আমরা এ সেবা দিচ্ছি। এরই ধারাবাহিকতায় শনি ও রোববার পেনাং জর্জ টাউন বিশপ স্ট্রিটে দূতাবাসের কনস্যুলেট অফিস এবং রোববার পেনাং বুকিত মারতাজাম অগ্রণী রেমিটেন্স হাউসে কনস্যুলার সেবা দেয়া হচ্ছে।

এ দিকে কনস্যুলার সেবা নিতে রোববার অগ্রণী রেমিটেন্স হাউসে শত শত প্রবাসী বাংলাদেশি ভিড় করেন। সবার কাছে পাসপোর্ট পৌঁছাতে দূতাবাসের পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার প্রথম সচিব মো. মশিউর রহমান তালুকদারের নেতৃত্বে চলছে কনস্যুলার সেবা।

এ ছাড়া প্রবাসীদের পাসপোর্টের আবেদন জমা দেয়া এবং ডিজিটাল পাসপোর্ট বিতরণে আছেন দূতাবাসের পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার অফিস সহকারি সু-শান্ত সরকার, প্রশাসনিক কর্মকর্তা তারিক আহমেদ ও কামরুজ্জামান।

এমএমজেড/পিআর

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :