মালয়েশিয়া সাবাহ’র চেম্বারের নেতাদের সঙ্গে দূতাবাসের মতবিনিময়

আহমাদুল কবির
আহমাদুল কবির আহমাদুল কবির , মালয়েশিয়া প্রতিনিধি মালয়েশিয়া
প্রকাশিত: ১০:০৩ পিএম, ০২ আগস্ট ২০১৮

মালয়েশিয়ার দ্বীপ রাজ্যে সাবাহ’র চেম্বার অব কমার্সের নেতাদের সঙ্গে দূতাবাসের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২ আগস্ট স্থানীয় সময় দুপুর ১টায় সাবাহ চেম্বার অব কমার্সের কার্যালয়ে দূতাবাসের প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) মো. রাজিবুল আহসান এ মতবিনিময় সভা করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, পুতাতান চাইনিজ চেম্বার অব কমার্সের চেয়ারম্যান দাতুক আইর তাং লং সিং, দাতুক রবার্ট লিং তং চাই সহ কমার্সের অন্যান্য নেতারা।

মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিরাজ করছে। দু’দেশের নিবিড় সম্পর্ককে কাজে লাগিয়ে দেশটিতে বসবাসরত বাংলাদেশি নাগরিকরা মাথা উচুঁ করে দাঁড়াতে পারে সে লক্ষ্যকে সামনে রেখে মালয়েশিয়ার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ছুটে চলেছেন রাষ্ট্রদূত মুহা. শহীদুল ইসলাম। মতবিনিময় করছেন রাজ্যের গভর্নর ও চিফ মিনিস্টারদের সঙ্গে।

aleshia-2

এছাড়া মালয়েশিয়ান বিনিয়োগকারী ও ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগ ও ব্যবসায় উৎসাহিত করতে ও আলোচনা করছেন ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে।

দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সকাল ১০টায় সাবাহ’র গভর্নর মাহির উদ্দিন ও চিফ মিনিস্টার মো. শফি আপদালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। রাষ্ট্রদূত সাবাহে অবস্থান করছেন এবং তার সঙ্গে রয়েছেন মিনিস্টার (পলিটিক্যাল মো. রাইছ হাসান সারোয়ার, শ্রম কাউন্সিলর মো. সায়েদুল ইসলাম ও প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) মো. রাজিবুল আহসান।

২ আগস্ট বৃহস্পতিবার মালয়েশিয়া সময় দুপুর ১টায় সাবাহের ইমিগ্রেশন পরিচালক পুয়ান সালমি ফারিনা এবং লেবার সেক্রেটারি কামাল পারডির সঙ্গে আলোচনা করেছেন শ্রম কাউন্সিলর মো. সায়েদুল ইসলাম। সাবাহ থেকে শ্রম কাউন্সিলর এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি জানান, সম্প্রতি আমরা সাবা থেকে কর্মীর চাহিদা পেয়েছি। বাংলাদেশ সরকার নিয়মতান্ত্রিকভাবে কর্মী প্রেরণ করতে চায় যাতে অভিবাসন ব্যয় কম হয় এবং কর্মীর সকল অধিকার সুনিশ্চিত হয়।

aleshia-2

কর্মী নিয়োগের সম্ভাব্যতা এবং পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা হয়। ইতোপূর্বে কখনো বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগ করেনি বলে জানান তিনি।

এদিকে বৃহস্পতিবার সাবাহ’র চেম্বার অব কমার্সের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করেন প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) মো. রাজিবুল আহসান।

প্রথম সচিব (বাণিজ্যিক) রাজিবুল আহসান এ প্রতিবেদককে বলেন, বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার সেরা গন্তব্য সে বিষয়টি মালয়েশিয়ার ব্যবসায়ীদের বোঝাবার চেষ্টা করছি। আলোচনা শেষে প্রথম সচিব সাবাহ’র ব্যবসায়ী নেতাদের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুলাই সকাল সারাওয়াক প্রদেশের চিফ মিনিস্টার দাতুক পাটিংগি আবাং হাজী আবদুল রহমান জোহারি বিন তুন দাতুক আবাং হাজী ওপেং এবং ২৭ জুলাই সারাওয়াক প্রদেশের গভর্নর তুন পেহিন সেরি হাজী আবদুল তাইব মাহমুদের সঙ্গে পৃথক পৃথকভাবে তাদের অফিসে সাক্ষাৎ করেন হাই কমিশনার মুহা. শহীদুল ইসলাম।

এমআরএম/পিআর

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :