মরুর বুকে ডুয়েটিয়ানদের মিলনমেলা

মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন
মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন , আমিরাত প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৬:৩৯ পিএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

শারজাহ আল মাজাজ পার্কে বনভোজন দিয়ে ২০০৭ সাল থেকে শুরু করে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ডুয়েট নামে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ইতিহাস। এরপর প্রতিবছর এভাবেই মিলনমেলায় মিলিত হয় আমিরাতে বসবাসরত ঢাকা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় ডুয়েটের প্রাক্তন ছাত্র ছাত্রীরা।

শিশুদের চিত্রাঙ্কন, ভাষা দিবসের স্মরণ, বিভিন্ন খেলাধুলা আর ক্যাম্পাসের দিনগুলোর গল্প ও সারাদিন নানারকম আয়োজনে মরুর বুকে আমিরাতের ফুজিরা, আবুধাবি, শারজা, দুবাই, আল আইন, উম্ম আল কোয়েন, আজমান আর হোস্ট স্টেট রাস আল খাইমার শতাধিক প্রকৌশলী পরিবারের স্বতস্ফুর্ত উপস্থিতিতে সাকার পার্ক একদিনের জন্য হয়ে উঠে জীবন্ত ডুয়েট ক্যাম্পাস।

টাইম মেশিনে চড়ে সবাই ফিরে যায় যার যার পুরানো দিনে। ডুয়েটের ১ম ব্যাচের গ্রাজুয়েট দুবাই আইইবির প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী আব্দুস সালাম খান-এর সভাপতিত্বে রাস আল খাইমার ডুয়েটিয়ানদের সংগঠক প্রকৌশলী আকিকুর রহমান-এর স্বাগত বক্তব্যে শুরু হয় অনুষ্ঠান।

Duet

সংগঠক প্রকৌশলী হাবিবুর রহমান কবির, মমিনুল ইসলাম মানিক, নূরে আলম, হুমায়ুন কবির, নেছার উদ্দিন, অনুষ্ঠানের টাইটেল স্পনসর প্রকৌশলী জহির রেহান, মিল্টন বিশ্বাসসহ আরও অনেকে বক্তব্য দেন।

ডুয়েটের নারী সদস্য নিলা, আলো, আর তাঞ্জিলারাও ক্যাম্পাসের সেই সোনালী দিনগুলো স্মরণ করে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়ে। বক্তারা প্রকৌশল পেশার এই আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় নিজেদের পেশাগত যোগ্যতা বৃদ্ধি,পারস্পরিক মতবিনিময় ও যোগাযোগ বাড়ানোর মাধ্যমে দেশকে ও ডুয়েটকে বৈশ্বিক এই মিলনমেলায় তুলে ধরার আহ্বান জানান।

এমআরএম/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :