মৃত্যুর পর প্রথমেই যে কাজগুলো জরুরি

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩১ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

আল্লাহ তাআলার ঘোষণা- প্রত্যেক পাণীকেই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে। সৃষ্টি জগতে এমন কোনো জীবন নেই, যার মৃত্যু হবে না। এ এক কঠিন বাস্তব সত্য।

মানুষ সেরা জীব। এ কারণেই মানুষের মৃত্যুর পর তার দেহকে সম্মানের সঙ্গে গোসল দেয়া হয়, কাফন ও সুগন্ধি দিয়ে সাজানো হয়। অতপর জানাজা ও দোয়ার মাধ্যমে দাফন করা হয়। তবে দাফনের আগে মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে কিছু কাজ করা জরুরি। তাহলো-

- যে কেউ মারা গেলে সঙ্গে সঙ্গে মৃতব্যক্তির চোখ দু’টি বন্ধ করে দেয়া। হাদিসে এসেছে-
হজরত আবু সালামা রাদিয়াল্লাহু আনহু যখন মৃত্যুবরণ করেন, তখন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর চোখ দুটি বন্ধ করে দেন। আর বলেন, যখন জান বা রূহ কবজ করা হয়, তখন মানুষের দৃষ্টি (চোখ) তার অনুসরণ করে।’ (মুসলিম)
- মৃতব্যক্তির শরীরের জোড়াগুলো নরম থাকতে থাকতে (শক্ত হওয়ার আগেই) ঠিক করে দেয়া।
- মৃতব্যক্তির পেটের উপর ভারি জাতীয় কিছু রাখা, যাতে তার পেট ফুলে না যায়।
- মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গে বড় একটি কাপড় দিয়ে পুরো শরীর (মাথা থেকে পা পর্যন্ত) ঢেকে দেয়া।
- দ্রুত মৃতব্যক্তিকে গোসল দেয়ার মাধ্যমে পবিত্র করা।
- যতদ্রুত সম্ভব গোসল, কাফন, ও দাফন সম্পন্ন করা।
- মৃত্যব্যক্তিকে ওই স্থানেই দাফন করা উত্তম। যেখানে সে মৃত্যুবরণ করে।

কোনো মানুষ মারা গেলে উল্লেখিত কাজগুলো করা খুবই জরুরি। মৃতব্যক্তি আপন হোক আর পর, সবার প্রতি সম্মান দেখানো জরুরি।

মানুষের মৃত্যুর পর মৃত্যব্যক্তির জানাজায় অংশগ্রহণ করে তার জন্য দোয়া করা উত্তম। কেননা জানাজা ও দাফনে অংশগ্রহণ করায় রয়েছে অনেক উপকারিতা।

মানুষের উচিত, যে কেউ মারা গেলে যথাযথ মর্যাদার সঙ্গে উল্লেখিত কাজগুলো করে সাওয়াব ও কল্যাণের কাজে অংশগ্রহণ করা। আল্লাহ তাআলা সবাইকে এ কাজগুলো করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]