মসজিদে আকসা ও ফিলিস্তিনিদের নিরাপত্তায় মক্কা-মদিনায় দোয়া

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:২৮ পিএম, ১১ মে ২০২১

মুসলমানদের প্রথম কেবলা মসজিদে আকসা। ইতেকাফে অংশগ্রহণকারী ও ইবাদতকারীদের ওপর ঘৃণ্য ও বর্বোচিত হামলা করে দখলদার ইসরাইলি সেনাবাহিনী। এতে কয়েকশ’ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছে। এদের অনেকে অবস্থা আশংকাজনক। তাদের জন্য এবং মসজিদে আকসার নিরাপত্তায় কাবা শরিফ ও মদিনার মসজিদে নববির ইমামরা আবেগঘন দোয়ায় অংশগ্রহণ করেছেন।

মসজিদে আকসার নিরাপত্তায় শবে কদরের রাতে কাবা শরিফ ও মসজিদে হারামের খতম তারাবির মোনাজাতে বিশেষ দোয়া করেন দুই ইমাম শায়খ আব্দুর রহমান সুদাইসি ও শায়খ সালাহ আল বুদাইর। কান্নাজড়িত কণ্ঠে নির্যাতিত নিপীড়িত ফিলিস্তিনিদের জন্য তারা আল্লাহর কাছে সাহায্য প্রার্থনা করেন।

হারামাইন শরিফাইনের টুইটার ও হারামাইন ডটকম-এ তাদের দোয়া-মোনাজাতের ভিডিও প্রকাশ করে। শায়খ সুদাইসি আবেগঘন কণ্ঠে দোয়া করেন। মোনাজাতে অংশগ্রহণকারী মুসল্লিরা আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত করে তোলো কাবা শরিফ চত্ত্বর। মোনাজাতে তিনি বলেন-

‘হে আল্লাহ! আপনি মুসলিমদের জীবনকে পরিশুদ্ধ করুন। হে আল্লাহ! মুসলিমদের জীবনের নিরাপত্তা দিন। হে আল্লাহ! আল আকসা মসজিদ রক্ষা করুন। দখলদার শত্রুদের হাত থেকে মসজিদ আকসা রক্ষা করুন।’

মদিনার মসজিদে নববির ইমাম ও খতিব শায়খ সালাহ আল-বুদাইরও আবেগঘন কণ্ঠে ফিলিস্তিনের মুসলমান এবং মসজিদে আকসার নিরাপত্তা দীর্ঘ মোনাজাতে করেন।

উল্লেখ্য এর আগে জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদ ও আশপাশের এলাকায় গত শুক্রবার রাত থেকে ইসরায়েলি পুলিশ ও মুসল্লিদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে দুই শতাধিক ফিলিস্তিনি আহত হন।

জেরুসালেমের ওল্ড সিটির কাছে শেখ জারাহ এলাকায় জমির মালিকানা নিয়ে গত ছয় দশক ধরে চার ফিলিস্তিনি পরিবারের সঙ্গে ইসরায়েলের বিরোধ চলছে। এর মধ্যে ইসরায়েলের একটি আদালত জমির মালিকানা ইহুদি পরিবারগুলোকে দিয়ে দেন। এরপর থেকেই ইসরায়েলি সেনাদের সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে তুমুল সংঘর্ষ শুরু হয়।

এমএমএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]