নারীর জন্য জামাতে নামাজ পড়া কি নিষিদ্ধ?

ইসলাম ডেস্ক
ইসলাম ডেস্ক ইসলাম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:০৫ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২২

জামাতে নামাজ পড়ার ফজিরত অনেক বেশি। কিন্তু নারীরা মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে না পারে না। জামাতে নামাজ পড়তে না পারার কারণে তারা সওয়াব থেকেও বঞ্চিত। নারীদের জামাত নামাজ প্রসঙ্গে ইসলামের দিকনির্দেশনা কী? নারীর জন্য মসজিদে গিয়ে জামাতে নামাজ পড়া কি নিষিদ্ধ?

‘না’, নারীর জন্য মসজিদে গিয়ে জামাতে নামাজ পড়া নিষিদ্ধ নয়। বরং নারীরা মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে পারবে। এ মর্মে হাদিসের সুস্পষ্ট দিকনির্দেশনা রয়েছে। কিন্তু নারীর জন্য সব সময় পর্দা পালন এবং নিরাপত্তার বিষয়টি জড়িত। নারীর মসজিদে যাওয়া প্রসঙ্গে হাদিসে এসেছে-

হজরত ইবনে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘যদি নারীরা তোমাদের কাছে মসজিদে যাওয়ার অনুমতি চায়, তাহলে তোমরা তাদেরকে (মসজিদে যাওয়ার) অনুমতি দিয়ে দাও।’ (বুখারি ও মুসলিম)

এ হাদিসের আলোকে কোনো নারী যদি মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়ার অনুমতি চায় তবে তাকে অনুমতি দেওয়াও নবিজীর সুন্নাত। সুতরাং নারীরা মসজিদে গিয়ে জামাতে যেমন নামাজ পরতে পারবে তেমনি মসজিদে গিয়ে ওয়াক্তের নামাজও পড়তে পারবে। সেজন্য মসজিদে নারীর নামাজ পড়ার আলাদা ব্যবস্থাপনা থাকতে হবে। আবার নারীর নিরাপত্তা ও পর্দা পালনের বিষয়টি ঝুঁকিমুক্ত হতে হবে।

অনেকেই নারীর মসজিদে না যাওয়ার ব্যাপারে অনেক যুক্তি তুলে ধরেন। মতপার্থক্য করেন। কিন্তু ইসলাম কোনো মতপার্থক্য ও যুক্তিতেই নারীকে মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়ায় বাধা দেয় না। তবে শর্ত হলো মসজিদে পর্দা ও নিরাপত্তাসহ নারীর নামাজ পড়ার ব্যবস্থা থাকতে হবে। আর এটি নিশ্চিত হলেই নারীর জন্য মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়া আরও সহজ হবে।

অনেক দেশে বর্তমান সামাজিক পরিস্থিতি ও মসজিদের কাঠামোগত অবস্থার কারণেই নারীরা মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে পারে না। দেশের প্রায় অধিকাংশ মসজিদে নারীদের জন্য আলাদা নামাজ পড়ার এবং অজু করার আলাদা ব্যবস্থাপনা নেই। এমনকি পর্দা ও নিরাপত্তার বিষয়টিও অক্ষত নয়। যে কারণে নারীরা মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে পারছে না।

তবে আরব দেশগুলোতে নারীর জামাতে নামাজ পড়ার রয়েছে সুন্দর নিরাপত্তা ব্যবস্থা ও সু ব্যবস্থাপনা থাকলেও বিশ্বের অধিকাংশ মুসলিম দেশেই নারীদের জন্য মসজিদে নামাজ পড়ার তেমন কোনো ব্যবস্থা গড়ে ওঠেনি। যে কারণে নারীরা মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়া থেকে বঞ্চিত।

তাই যেসব অঞ্চলে নারীর মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়ার ব্যবস্থাপনা রয়েছে সেখানে জামাতে কিংবা যে কোনো নামাজ নারীরা মসজিদে গিয়ে আদায় করতে পারবে।

মনে রাখতে হবে

নামাজ পড়তে গেলে যদি নারীর পর্দা, নিরাপত্তা কিংবা ফেতনার আশংকা থাকে তবে নারীর জন্য ঘরে নামাজ পড়াই উত্তম। কারণ সেক্ষেত্রে বেপর্দা, নিরাপত্তা ও ফেতনা থেকে নিরাপদ থাকা জরুরি।

যেহেতু মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়ার সওয়াব বেশি। তাই প্রতি সমাজের দায়িত্বশীলদের উচিত, পুরুষদের নামাজের সুন্দর ব্যবস্থাপনার পাশাপাশি নারীদের নামাজ পড়ার সুন্দর ও নিরাপদ ব্যবস্থাপনা তৈরি করার দিকে দৃষ্টি দেওয়া।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ফেতনা ও বেপর্দামুক্ত সমাজ ব্যবস্থা দান করুন। নারী-পুরুষ সবাইকে মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]