রমজানের প্রস্তুতির মাস শাবান


প্রকাশিত: ০৭:২৩ এএম, ০৮ মে ২০১৭

আরবি হিজরি সনের অষ্টম মাস হলো শাবান। যার পরবর্তী মাসটিই রহমত বরকত মাগফিরাত ও নাজাতের বারতা নিয়ে প্রতি বছর মুসলিম উম্মাহর মাঝে ফিরে আসে। প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম রমজান মাসের দুই মাস আগে থেকেই আল্লাহ তাআলার দরবারে রমজানের প্রস্তুতির জন্য দোয়া করতেন। এ দোয়া মূলত রমজানের রোজা পালনের জন্য পূর্ব প্রস্তুতি স্বরূপ।

পবিত্র রমজান মাস মুসলিম উম্মাহর চাওয়া ও পাওয়ার মাস। রমজান মাস ও রমজানের রোজা পালনের বিষয়ে আল্লাহ এবং তাঁর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম অনেক খোশখবরি বর্ণনা করেছেন। বিধায় রমজান মাসের চাওয়া ও পাওয়াকে পূর্ণ করতে মুসলিম উম্মাহর শারীরিক ও মানসিক প্রস্তুতি প্রয়োজন।

শাবন মাসই হলো রমজানের পূর্ব প্রস্তুতির মাস। এ মাসের দোয়া ইসতেগফার ও ইবাদত রমজান মাসের ইবাদতের জন্য রিহার্সেল স্বরূপ। আর এ কারণেই প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম শাবান মাসজুড়ে রোজা রেখেছেন। যা রমজানের রোজা পালনের পূর্ব প্রস্তুতি বিশেষ।

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম রজব মাসের চাঁদ উঠলেই তিনি আল্লাহ তাআলার নিকট এভাবে দোয়া করতেন যে, ‘হে আল্লাহ! আপনি রজব এবং শাবান মাসকে আমাদের জন্য বরকতময় করুন এবং আমাদেরকে রমজান পর্যন্ত পৌছিয়ে দিন।

হজরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা বলেছেন, ‘রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম শাবান মাসের প্রতি এত বেশি লক্ষ্য রাখতেন; যা অন্য কোনো মাসের ক্ষেত্রে রাখতে না। (আবু দাউদ)

হজরত আয়িশা রাদিয়াল্লাহু আনহা আরো বলেন, ‘রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম শাবান মাসের চেয়ে অন্য কোনো মাসে এতো বেশি (নফল) রোজা রাখতেন না। (বুখারি, মুসনাদে আহমাদ) রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মধ্য শাবান অর্থাৎ ১৫ শাবান জান্নাতুল বাকিতে গিয়ে মুমিনদের কবর যিয়ারাত করতেন এবং তাদের জন্য দোয়া করতেন।

সতর্কতা
আমাদের দেশে ১৪ শাবান দিবাগত রাতকে ভাগ্য রজনি হিসেবে উল্লেখ করে বিভিন্ন আমল ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এ রাতে নফল ইবাদাত-বন্দেগি করতে মসজিদে রাতব্যাপী প্রচণ্ড ভিড় পরিলক্ষিত হয়।
কিন্তু রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের বাসগৃহ আর মসজিদে নববি এক সঙ্গে থাকা সত্ত্বেও তিনি নিজ গৃহে নফল ইবাদাত-বন্দেগি করেছেন।

সুতরাং কোনো রুসুম রেওয়াজে গা না ভাসিয়ে শাবান মাসের গুরুত্ব ও মর্যাদা রক্ষার্থে নফল রোজা, ইবাদাত-বন্দেগি ও মৃত ব্যক্তির জন্য দোয়া করা।

পরিশেষে…
শাবান মাসের নফল ইবাদত ও রোজা পালন মুসলিম উম্মাহর জন্য নিজেদেরকে পবিত্র রমজান মাসের রোজা পালন এবং ইবাদত-বন্দেগির উপযোগী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য বিশেষ প্রস্তুতির মাস।
আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে শাবানমাস জুড়ে নফল রোজা এবং নফল ইবাদত বন্দেগি করে নিজেদেরকে শারীরিক ও মানসিকভাবে রমজানের প্রস্তুতি গ্রহণ করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]