বাংলাদেশে যেভাবে সম্পন্ন হচ্ছে হাজিদের সৌদি ইমিগ্রেশন

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:২২ এএম, ১৭ জুলাই ২০১৯

হজযাত্রীদের দীর্ঘ বিমান সফরের ক্লান্তি ও কষ্ট কমাতে এবার নতুন উদ্যোগে গ্রহণ করেছে সৌদি আরব হজ কর্তৃপক্ষ। ‘মক্কা রুট ইনিশিয়েটিভ’ নামক প্রোগ্রামের আওতায় সম্পন্ন হচ্ছে এ কার্যক্রম।

সারা বিশ্ব থেকে হজ উপলক্ষ্যে সৌদি আরবের জেদ্দা ও মদিনা বিমানবন্দর ব্যবহার করে হজ যাত্রীরা। আর এতে মদিনা ও জেদ্দা বিমানবন্দরে প্রচণ্ড ভিড় তৈরি হয়। হজ যাত্রীদের দীর্ঘ সময় অপেক্ষা থেকে মুক্ত করতেই সৌদি হজ কর্তৃপক্ষ হাতে নিয়েছে ‘মক্কা রোড ইনিশিয়েটিভ’ কার্যক্রম।

আর তাই হজ উপলক্ষ্যে প্রত্যেকে দেশেই সৌদি আরবের ইমিগ্রেশন সম্পন্ন হয়ে যাচ্ছে। ফলে জেদ্দা ও মদিনা বিমানবন্দরে লাগেজ সংগ্রহ ছাড়া আর কোনো দেরি নেই। তাতে আরাম ও স্বস্থিবোধ করছেন হজ যাত্রীরা। বাংলাদেশ থেকে হজে গমনকারী যাত্রীদের মাধ্যমে জানা যায় এসব তথ্য-

বাংলাদেশে যেভাবে সম্পন্ন হচ্ছে সৌদি ইমিগ্রেশন
>> বাংলাদেশের সব হজযাত্রীকে বিমান যাত্রার ৫-৬ ঘণ্টা আগেই হজ ক্যাম্পে পৌছতে হয়।
>> হাজি ক্যাম্পে ওমরার ইহরাম বেঁধে প্রথমেই সৌদি ইমিগ্রেশনের ‘মক্কা রুট ইনিশিয়েটিভ’ স্টিকার পাসপোর্টে লাগিয়ে নিতে হয়।
>> অতঃপর হজ ক্যাম্পেই বিমানের বোডিং পাস নিয়ে বাংলাদেশ ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করতে হয়।
অতঃপর-
>> হজ ক্যাম্প থেকে প্রত্যেক হজযাত্রীকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় বাসে করে বিমানবন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়।
>> সৌদি আরবের ইমিগ্রেশন হজরত শাহজালাল বিমানবন্দরে ভেতরেই সম্পন্ন করা হয়।
>> হজ ক্যাম্পে লাগানো ‘মক্কা রুট ইনিশিয়েটিভ’ স্টিকার দেখে হজ যাত্রীদের ১০ আঙুলের ছাপ নেয়া হয়।
>> সৌদি ইমিগ্রেশন শেষে বিমানবন্দর থেকেই হজযাত্রীদের বিমানে উঠানো হয়।
>> জেদ্দা কিংবা মদিনায় গিয়ে হজযাত্রীরা ‘মক্কা রুট ইনিশিয়েটিভ’ গেট দিয়ে পাসপোর্ট দেখিয়ে বের হয়ে যান।

হজক্যাম্পে হাজিদের সহযোগিতায় স্কাউট, আনসার সদস্য ও হজের সফরের মুয়াল্লিমগণ সার্বিক সহযোগিতা করেন। বিমানবন্দরে সৌদি ইমিগ্রেশন অফিসারদের সঙ্গে সহযোগিতায় বাংলাদেশি প্রতিনিধিরাও রয়েছেন।

উল্লেখ্য যে, ‘মক্কা রুট ইনিশিয়েটিভ’ কার্যক্রমের ফলে বাংলাদেশের অতিরিক্ত ২-৩ ঘণ্টা সময় বেশি লাগলেও দীর্ঘ বিমান ভ্রমনের পর জেদ্দা কিংবা মদিনায় ৫-৭ ঘণ্টা থেকে শুরু করে অনেক সময় প্রায় ১০ ঘণ্টার ইমিগ্রেশন বিড়ম্বনা থেকে বেঁচে যাচ্ছে হজ পালনকারীরা। বিনা ঝামেলায় হজ যাত্রীরা জেদ্দা কিংবা মদিনা বিমানবন্দরে ‘মক্কা রুট ইনিশিয়েটিভ’ দিয়ে সহজেই নির্দিষ্ট গন্তব্যে সহজেই পৌছে যায়।

এমএমএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :