ফিলিস্তিনের ৩ বছরের শিশুকে বন্দি করলো ইসরায়েলি সেনা

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৫৪ এএম, ৩১ জুলাই ২০১৯

৩ বছরের ফিলিস্তিনি শিশু মুহাম্মাদ রবি ইলইয়ান। তাকে বন্দি করে নিয়ে যাচ্ছে দখলদার ইসরায়েলি সেনারা। দখলদার ইসরায়েলি সেনাদের সঙ্গে পিতার হাত ধরে থানার দিকে হেটে যাওয়া বন্দি ইলইয়ানের নিষ্ঠুর এ গ্রেফতারের ভিডিওর বিশ্ববিবেককে নাড়া দেয়। উত্তাল হয়ে ওঠে অনলাইন এক্টিভিস্টরা।

ইসরায়েলি সেনাদের গাড়ি লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করার অভিযোগে ৩ বছরের শিশু মুহাম্মাদ রবি ইলইয়ানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গ্রেফতার করে নিয়ে যাওয়া হয়।

গত মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) সকালে ইলইয়ান ঘুম থেকে উঠলে তার মা তাকে জামা-কাপড় পড়াচ্ছিলেন। এমন সময় একদল ইসরায়েলি সৈন্য জেরুজালেম নগরীর ইসাইয়া এলাকায় অবস্থিত তাদের বাড়ি থেকে আটক করে নিয়ে যায়।

ইসরায়েলি দখলদার বাহিনীর দাবি, সোমবার ইসাইয়া এলাকায় সেনা অভিযান চলাকালে ৩ বছরের শিশু মুহাম্মাদ রবি ইলইয়ান তাদের গাড়ি লক্ষ্য করে পাথর ছুড়ে মারে।

এ ঘটনায় অনেক মানবাধিকার ও মানবতাবাদী সংগঠন তাদের এ ঘৃণ্য ও আজব কাণ্ডের কঠোর সমালোচনা করেন। তাদের মতে, ৩ বছরের শিশুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গ্রেফতার করা বড়ই হাস্যকর ও অদ্ভুত! তাকে গ্রেফারের দৃশ্যধারণ আরও হাস্যকর পরিস্থিতির জন্ম দিয়েছে।

জাতিসংঘের জরিপে বিগত কয়েক বছরের ন্যায় এবারও ইসরায়েল শিশু হত্যাকারী দেশ হিসেবে কালো তালিকাভুক্ত হয়েছে। ফিলিস্তিনি শিশুদের হত্যা ও বন্দি তাদের বিকৃত রুচির বহিঃপ্রকাশ।

সর্বশেষ ৩ বছরের মুহাম্মাদ রবি ইলইয়ানের আটকের ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় বিশ্বব্যাপী তা তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। আটকের পর পিতার হাত ধরে থানার উদ্দেশে যাওয়ার ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে অনলাইন এক্টিভিস্টরা ইসরায়েলে কঠোর সমালোচনা করে।

তাদের দাবি, ৩ বছরের নিষ্পাপ শিশুর সঙ্গে ইসরায়েলি দখলদার বাহিনীর এ আচরণ নিঃসন্দেহে মানবতাবিরোধী অপরাধের শামিল।

এমএমএস/জেআইএম