একত্ববাদের সবচেয়ে বড় আহবায়ক


প্রকাশিত: ০৫:০৯ এএম, ১৮ মে ২০১৬

আল্লাহ তাআলা যাকে নেতৃত্বদান করবেন, তাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবেন, যাচাই-বাছাই করবেন এটাই স্বাভাবিক। ঠিক মুসলিম জাতির নেতা নির্ধারণের পূর্বেও আল্লাহ তাআলা হজরত ইবরাহিম আলাইহিস সালামকে বহু পরীক্ষা-নিরীক্ষায় করেছেন। যাতে তিনি সাবলীলভাবে উত্তীর্ণ হয়েছেন। তাইতো তিনি হয়েছেন একত্ববাদের সবচেয়ে বড় আহবায়ক। আল্লাহ তাআলা বলেন-

Quran

স্মরণ কর যখন ইবরাহিমকে (আলাইহিস সালাম) তার প্রভু কয়েকটি ব্যাপারে (বাক্য দ্বারা) পরীক্ষা করলেন এবং সে সব পরীক্ষা তিনি পুরোপুরি উত্তীর্ণ হলেন; তখন তিনি (আল্লাহ) বললেন, আমি তোমাকে সকল মানুষের নেতার আসনে অধিষ্ঠিত করবো। তিনি (ইবরাহিম আলাইহিস সালাম) বললেন, আর আমার সন্তানদের সাথেও কি এ অংগীকার?` তিনি (আল্লাহ) বলেন, আমার এ অংগীকার জালেমদের ব্যাপারে নয়। (সুরা ইবরাহিম : আয়াত ১২৪)

আল্লাহ তাআলা হজরত ইবরাহিম আলাইহিস সালাম থেকে অসংখ্য পরীক্ষা নিয়েছেন। এ জন্য তিনি সত্যের আলোয় উদ্ভাসিত হওয়ার পর থেকে মৃতু্যর পূর্ব পর্যন্ত অনেক ত্যাগ ও কুরবানির মূর্ত প্রতীক হিসেবে নিজেকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছেন। এ জন্য আল্লাহ তাআলা তাঁকে মুসলিম জাতির ইমাম নির্ধারণ করেছেন এবং তার বংশধরদের জন্য কিয়ামাত পর্যন্ত উম্মাহর নেতৃত্ব নির্ধারণ করেছেন। যা আল্লাহ তাআলার একান্ত অনুগ্রহ।

আর আল্লাহ তাআলার এ নেতৃত্বের অংগীকার ঐ সকল লোকদের জন্য, যারা সদাচারী, সত্যনিষ্ট ও সৎকর্মশীল। এ অংগীকার ইয়াহুদি, খ্রিস্টান ও অবিশ্বাসী জালেমদের জন্য নয়।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ঈমানের সকল অগ্নি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে তাওহিদের ঝাণ্ডা ধারণ করার তাওফিক দান করুন। আ মিন।

এমএমএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :