শেষ চারের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখলো রাজশাহী

মুনওয়ার আলম নির্ঝর
মুনওয়ার আলম নির্ঝর মুনওয়ার আলম নির্ঝর , স্পোর্টস রিপোর্টার চট্টগ্রাম থেকে
প্রকাশিত: ১০:৫৭ এএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৭

ম্যাচ হারলেই শেষ চারে যাবার স্বপ্ন শেষ হয়ে যাবে, এমন কঠিন সমীকরণ মাথায় নিয়েই মাঠে নেমেছিল রাজশাহী কিংস। খুব বেশি রান করতে না পারলেও শেষ পর্যন্ত জয় ছিনিয়েই এনেছে তারা। কাজী অনিকের দুর্দান্ত বোলিংয়ে চিটাগং ভাইকিংসকে ১২৪ রানে গুটিয়ে দেয় ড্যারেন স্যামির দল। ফলে ৩৩ রানের বড় জয় পায় রাজশাহী কিংস

১৫৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে চিটাগংয়ের দুই ওপেনারই ব্যর্থ ছিলেন। লুক রনকি মাত্র ৮ রান করেই সাজঘরে ফেরেন। আর ধারাবাহিক ফর্মহীনতায় ভোগা সৌম্য সরকার এদিন টেস্ট স্টাইলে ১৫ বলে মাত্র ১৩ রান করেই আউট হন। তবে একটি ছয় তিনি মারেন!

চিটাগংয়ের আরেক দেশি ক্রিকেটার এনামুল হক বিজয়ও এদিন বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। ২০ বলে খেলে তিনি করেন ২৩টি রান। যার মধ্যে ছিল ৩টি চার ও একটি ছয়ের মার।

চিটাগংয়ের ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের ইনিংসটি খেলেন স্টিয়ান ফন জেল। ২৯ বল খেলে তিনি করেন ২৭টি রান। তবে এই ইনিংসে ছিল না কোন বাউন্ডারি বা ওভার বাউন্ডারি। এছাড়া চিটাগংয়ের হয়ে এই আসরে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস (৯৫) খেলা সিকান্দার রাজা ১৭ রান করেন। বাকিদের কেউ বলার মত কিছু করতে পারেননি।

রাজশাহীর হয়ে অনুর্দ্ধ-১৯ দলের কাজী অনিক একাই নেন ৪টি উইকেট। ৩.২ ওভার বল করে মাত্র ১৭ রানের বিনিময়ে তিনি চারটি উইকেট পান। মূলত তার বোলিংয়ের কাছেই বিধ্বস্ত হয় চিটাগং। আর ইনজুরি কাটিয়ে ফেরা মোস্তাফিজ ২টি উইকেট তুলে নেন। এছাড়া মোহাম্মদ সামি ও উসমান মীর একটি করে উইকেট নেন।

এর আগে চিটাগংয়ের ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে উইকেট কিপারের দায়িত্ব পালন করার সময় আঙ্গুলে ব্যথা পেয়ে দ্বিতীয় ওভারে মাঠ ছাড়েন মুশফিকুর রহিম। পড়ে উইকেট রক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন জাকির হোসেন।

উল্লেখ্য, টস জিতে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে তাদের সংগ্রহ ১৫৭ রান। রাজশাহীর হয়ে সর্বোচ্চ ইনিংসটি খেলেছেন ড্যারেন স্যামি। ২৫ বলে তিনি করেন ৪০ রান। যার মধ্যে ছিল ২টি চার ও ৩টি ছয়। আর ফ্রাঙ্কলিন করেন ৩০ রান।

এমএএন/এমএমআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :