‘স্মার্ট ঘড়ি’ পরে তিরষ্কৃত পাকিস্তান ক্রিকেট দল

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৫৮ এএম, ২৫ মে ২০১৮ | আপডেট: ১২:১১ পিএম, ২৫ মে ২০১৮

ক্রিকেট মাঠে ছলচাতুরীর আশ্রয় নেয়ার ঘটনা নতুন কিছু নয় পাকিস্তানী ক্রিকেটে। অভিনব সব পন্থায় বাড়তি সুবিধা নেয়ার ক্ষেত্রে অন্য সবার চেয়ে কয়েক ধাপ এগিয়ে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। তেমনই এক নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন দুই পাকিস্তানি ক্রিকেটার আসাদ শফিক এবং বাবর আজম।

বৃহস্পতিবার লর্ডসে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে মুখোমুখি হয়েছে পাকিস্তান এবং ইংল্যান্ড। এই ম্যাচের প্রথম দিনে ‘স্মার্ট ঘড়ি’ পরে মাঠে নামেন বাবর এবং আসাদ। এই ঘড়ি ব্যবহার করে দূরের যে কারো সাথে যোগাযোগ স্থাপন সম্ভব। আইসিসির নিয়ম-কানুনে স্পষ্ট করে উল্লেখ করা আছে যেকোন ধরনের কমিউনিকেশন ডিভাইস মাঠ এবং ড্রেসিংরুম এরিয়াতে বহন করা যাবে না।

কিন্তু নিজেদের হাতে স্মার্ট ঘড়ি পরে এই নিয়ম ভঙ্গ করেছেন বাবর এবং আসাদ। যার ফলে দিনের খেলা শেষে আইসিসির তরফ থেকে মৌখিক তিরষ্কার করা হয়েছে এবং পরবর্তীতে আর এমন কোন ডিভাইস সাথে বহন করতে বারণ করা হয়েছে এই দুই ক্রিকেটারসহ পুরো পাকিস্তান দলকে।

Asad-paki

প্রথম দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এই কথা জানিয়েছেন পাকিস্তানের ডানহাতি পেসার হাসান আলি। তিনি বলেন, ‘আমি জানতামই না যে আমাদের মধ্যে কেউ এটি (স্মার্ট ঘড়ি) পরেছে। তবে হ্যাঁ! আইসিসির দুর্নীতি দমন কর্মকর্তা আমাদের কাছে এসে বলে গেছে যে এমন ঘড়ি পরার নিয়ম নেই। তাই যাতে পরবর্তীতে আর কেউ এই ঘড়ি পরে মাঠে না নামে।’

স্মার্ট ঘড়ি পরে আইসিসি কর্তৃক পাকিস্তানের দুই ক্রিকেটার তিরষ্কৃত হলেও মাঠে ঠিকই আধিপত্য বিস্তার করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। প্রথম দিন শেষে স্বাগতিকদের চেয়ে মাত্র ১৩৪ রানে পিছিয়ে আছে সফরকারীরা, হাতে আছে নয়টি উইকেট। এর আগে টসে জিতে ব্যাট করতে নামা ইংল্যান্ডকে ১৮৪ রানেই থামিয়ে দেয় পাকিস্তান।

এসএএস/এমএস