সৌম্যর মাঝে দুই সমাধান দেখছেন মাশরাফি

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা চট্টগ্রাম থেকে
প্রকাশিত: ০৫:৩৮ পিএম, ২৫ অক্টোবর ২০১৮

ন্যাশনাল ক্রিকেট লিগে খেলছিলেন খুলনার হয়ে, হঠাৎ খবর পেলেন শেষ ওয়ানডের স্কোয়াডে নেয়া হয়েছে তাকে। অগত্যা খুলনায় ম্যাচ অসমাপ্ত রেখেই থেকেই চট্টগ্রামের পথে পা বাঁড়ান বাঁহাতি ড্যাশিং ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার।

চলতি এনসিএলে দুর্দান্ত খেলেছেন সৌম্য, ব্যাট হাতে হাঁকিয়েছেন ফিফটি-সেঞ্চুরি, বল হাতে নিয়েছেন পাঁচ উইকেট। ওয়ানডে সিরিজের আগে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচেও খেলেছেন ১০২ রানের ঝলমলে ইনিংস। সবমিলিয়ে নিজেকে একটি প্যাকেজ হিসেবে তৈরি করেছেন তিনি। যার পুরষ্কারস্বরুপ মিলেছে ওয়ানডে স্কোয়াডে সুযোগ।

সৌম্য নিজেকে ফিরে পাওয়ায় খুশি টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাও। তৃতীয় ম্যাচের আগে বুধবার সকালবেলা টিম হোটেল র‍্যাডিসন ব্লুতে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন সিরিজ জয়ী অধিনায়ক। সেখানে তিনি জানান সৌম্যের ব্যাপারে নিজের পরিকল্পনার কথা।

সাধারণত টপঅর্ডারে ব্যাটিং করে থাকেন সৌম্য। তবে দলের প্রয়োজনে সাত নম্বরে পেস বোলিং অলরাউন্ডার হিসেবে খেলতেও কোনো আপত্তি থাকে না ২৫ বছর বয়সী এ ক্রিকেটারের। সৌম্যের এই তিন এবং সাত - দুই জায়গায় খেলতে পারার গুণটাই কাজে লাগাতে চান বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি।

বিশেষ করে বর্তমান সময়ে বল হাতে সৌম্যের অভাবনীয় উন্নতিটা আশাবাদী করছে মাশরাফিকে। তিনি মনে করেন এক সৌম্যকে দিয়েই দুটি জায়গার সমাধান পেতে পারে দল। তবে এখনই তাকে মূল দলের জন্য ভাবছেন না অধিনায়ক, বরং ব্যাকআপ হিসেবেই তাকে দলের সাথে রাখতে চান মাশরাফি।

অধিনায়ক বলেন, ‘দেখুন সৌম্য দুই জায়গাতেই খেলেছে এবং আমারও সমস্যা নেই তাঁর এই দুই জায়গা নিয়ে। সৌম্য যদি ফর্মে থাকে এবং সবকিছু ঠিক থাকে সে ওপেনারেরও ব্যাকআপ হতে পারে আবার সাত নাম্বারেরও ব্যাকআপ হতে পারে। এর একটাই কারণ যে তাঁর বোলিং আছে এবং সে বোলিং ভাল করছে। এটি তাঁর জন্য অনেক বড় একটি সুবিধা। সুতরাং আমার কাছে মনে হয় সে দুইটি জায়গারই ব্যাকআপ হতে পারে। ওকে দিয়ে দুইটি জায়গার সমাধান পাওয়া যেতে পারে বলে আমি মনে করি।’

এসএএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]