ব্যাটিংয়ে মুশফিকের রেকর্ড, বোলিংয়ে বাজিমাত মিরাজের

শাহাদাৎ আহমেদ সাহাদ
শাহাদাৎ আহমেদ সাহাদ শাহাদাৎ আহমেদ সাহাদ , স্পোর্টস রিপোর্টার
প্রকাশিত: ১১:১৩ এএম, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮

গত শনিবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলা সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টির মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে ২০১৮ সালে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সকল খেলা। এবছর ৮টি টেস্ট, ২০টি ওয়ানডে ও ১৬টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে। পরিসংখ্যান জানাচ্ছে চলতি বছরটাই বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি জয়ের বছর।

এবছর সবমিলিয়ে খেলা ৪৪টি ম্যাচের মধ্যে টাইগারদের জয় এসেছে ২১টিতেই। ৩টি টেস্ট, ১৩টি ওয়ানডে ও ৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে জিতেছে বাংলাদেশ। এতো গেলো চলতি বছর বাংলাদেশের দলীয় পারফরম্যান্সের হিসেব। ২০১৮ সালে টাইগারদের ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে এগিয়ে কারা? উত্তর খোঁজা যাক পরিসংখ্যানেই।

ব্যাট হাতে চলতি বছরে সবাইকে ছাড়িয়ে গিয়েছেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সবশেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজে তিন ম্যাচে মাত্র ৭ রান (৫+১+১) করলেও বছরজুড়ে মুশফিকের চেয়ে বেশি রান করতে পারেননি বাংলাদেশের অন্য কোনো ব্যাটসম্যান।

শুধু তাই নয় তিন ফরম্যাট মিলিয়ে বাংলাদেশের পক্ষে রেকর্ডও গড়েছেন মুশফিক। ২০১০ সালে তিন ফরম্যাটি মিলে ১৬৪৬ রান করেছিলেন তামিম ইকবাল। এটিই ছিলো এক বছরে বাংলাদেশের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড।

তামিমের এ রেকর্ড ভেঙে চলতি বছর ১৬৫৭ রান করেছেন মুশফিক। ৪৩ ম্যাচের ৫০ ইনিংসে এই রান করার পথে বাংলাদেশের পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ২১৯ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছেন তিনি। এছাড়া বছরজুড়ে সবমিলিয়ে ২টি সেঞ্চুরি ও ৯টি হাফসেঞ্চুরি এসেছে মুশফিকের ব্যাট থেকে।

অন্যদিকে বল হাতে বাজিমাত করেছেন ডানহাতি অফস্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ। এ বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার উইকেটসংখ্যা ৬১টি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাত্র ১১৭ রান খরচায় ১২ উইকেট নিয়ে তিনিও গড়েছেন এক ম্যাচে বাংলাদেশের পক্ষে সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড।

বোলিংয়ে ২০১৮ সালে মিরাজের পরেই রয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান ও সাকিব আল হাসান। এ দুজনই ইনজুরি ও টেস্টে পেসারদের নিষ্প্রভতার কারণে পিছিয়ে গিয়েছেন। বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজ এ বছর নিয়েছেন ৫৭ উইকেট, সাকিবের উইকেটসংখ্যা ৫৩টি।

২০১৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকা

১/ মুশফিকুর রহিম: ৪৩ ম্যাচে ১৬৫৭ রান (টেস্ট ৪৯০, ওয়ানডে ৭৭০, টি-টোয়েন্টি ৩৯৭)
২/মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ: ৪৪ ম্যাচে ১৩০৯ রান (টেস্ট ৪৭৬, ওয়ানডে ৪১৯, টি-টোয়েন্টি ৪১৪)
৩/ তামিম ইকবাল: ৩১ ম্যাচে ১২০১ রান (টেস্ট ১৬৩, ওয়ানডে ৬৮৪, টি-টোয়েন্টি ৩৫৪)
৪/ লিটন দাস: ৩৩ ম্যাচে ৯৭৭ রান (টেস্ট ৩০৪, ওয়ানডে ৩৪০, টি-টোয়েন্টি ৩৩৩)
৫/ সাকিব আল হাসান: ৩০ ম্যাচে ৯৫৮ রান (টেস্ট ২১৩, ওয়ানডে ৪৯৭, টি-টোয়েন্টি ২৪৮)

২০১৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীদের তালিকা

১/ মেহেদি হাসান মিরাজ: ৩৩ ম্যাচে ৬১ উইকেট (টেস্ট ৪১, ওয়ানডে ১৮, টি-টোয়েন্ট ২)
২/ মোস্তাফিজুর রহমান: ৩৫ ম্যাচে ৫৭ উইকেট (টেস্ট ৭, ওয়ানডে ২৯, টি-টোয়েন্টি ২১)
৩/ সাকিব আল হাসান: ৩০ ম্যাচে ৫৩ উইকেট (টেস্ট ১৭, ওয়ানডে ২১, টি-টোয়েন্টি ১৫)
৪/ তাইজুল ইসলাম: ৭ ম্যাচে ৪৩ উইকেট (টেস্ট ৪৩, ওয়ানডে ০, টি-টোয়েন্টি ০)
৫/ রুবেল হোসেন: ২৭ ম্যাচে ৩৬ উইকেট (টেস্ট ০, ওয়ানডে ২৩, টি-টোয়েন্টি ১৩)

এসএএস/জেআইএম