বিধ্বংসী পেরেরা : রান পাহাড়ে কুমিল্লা

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৩৫ পিএম, ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

চলতি বছরটা যেনো সৌভাগ্যই বয়ে নিয়ে এসেছে শ্রীলঙ্কার বাঁহাতি অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরার জন্য। বছরের শুরু থেকেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বিধ্বংসী ব্যাটিং করেছেন। এমনকি গত শুক্রবারও অকল্যান্ডে খেলেছেন ২৪ বলে ৪৩ রানের ঝড়ো ইনিংস।

সে ম্যাচ শেষ করে উড়াল দিয়েছেন ঢাকার উদ্দেশ্যে, একদিন বিরতি দিয়ে আজ (রোববার) আবার দেখালেন ব্যাটিং তাণ্ডব। যে তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড হয়ে গিয়েছে চিটাগং ভাইকিংসের বোলিং আক্রমণ, রান পাহাড়ে চড়েছে কুমিল্লা ভাইকিংস।

শুরুর দিকের ব্যাটসম্যানরা যেখানে রান করতে বেগ পাচ্ছিলেন, সেখানে ১৪তম ওভারে আট নম্বরে ব্যাটিং করতে নেমে রীতিমতো টর্ণেডো বইয়ে দিয়েছেন পেরেরা। মাত্র ২৬ বলে খেলেছেন ৭৪ রানের ইনিংস, ৩টি চারের সঙ্গে হাঁকিয়েছেন ৮টি বিশাল ছক্কা।

পেরেরার এই ঝড়ো ইনিংসেই মূলত নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৮৪ রানের বিশাল সংগ্রহ পেয়েছে কুমিল্লা। এছাড়া সাইফউদ্দীন অপরাজিত ছিলেন ২৬ রানে। চট্টগ্রাম ভাইকিংসকে জয়ের জন্য করতে হবে ১৮৫ রান।

অথচ টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি কুমিল্লার। ইনিংসের প্রথম ওভারে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফেরেন অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবাল। বেশি কিছু করতে পারেননি উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয়ও।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে এভিন লুইসকে সঙ্গে নিয়ে প্রাথমিক চাপ সামাল দেন অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। দুজন মিলে যোগ করেন ৫৪ রান। কায়েস আউট হন ২১ বলে ২৪ রান। শুরুতে ধীর ব্যাটিং করা লুইস যখনই নিজের স্ট্রাইকরেট বাড়াতে যাবেন, তখনই পড়ে যান ইনজুরিতে।

পায়ের পেশিতে টান লাগায় মাঠ ছাড়ার আগে ৬টি চারের মারে ৩৪ বলে ৩৮ রান করেন লুইস। এরপর অল্পেই ফিরে যান লিয়াম ডসন এবং শহীদ আফ্রিদি। দুজনই করেন ২ রান করে।

১৪তম ওভারের তৃতীয় বলে উইকেটে আসেন পেরেরা, সঙ্গী হিসেবে পান মোহাম্মদ সাইফউদ্দীনকে। বাকি থাকা ৪০ বলের মধ্যে ২৬টিই খেলেন পেরেরা, যার পূর্ণ ফায়দা পায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস।

নিজের ইনিংসের শুরু থেকেই ঝড় তোলার আভাস দেয়া পেরেরা সবচেয়ে বেশি বিধ্বংসী হন ইনিংসের ১৯তম ওভারে। এখনো পর্যন্ত টুর্নামেন্টে বল-ব্যাট উভয়দিকেই দুর্দান্ত খেলতে থাকা রবি ফ্রাইলিংকের করা ওভারে ১টি দুই ও ১টি চারের সঙ্গে ৪টি বিশাল ছক্কার মারে ৩০ রান করেন পেরেরা।

মাত্র ২০ বলে পূরণ করেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে নিজের ৭ম হাফসেঞ্চুরি। পেরেরার দেখাদেখি ১০৩ মিটারের বিশাল এক ছক্কা মারেন সাইফউদ্দীনও। শেষপর্যন্ত ২৬ বলে ৭৪ রানে পেরেরা এবং ১৯ বলে ২৬ রানে অপরাজিত থাকেন সাইফউদ্দীন।

এসএএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :