নিষেধাজ্ঞা থেকে ফিরে ব্যাট হাতে দুরন্ত বেনক্রফট

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:০৫ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

ক্যামেরন বেনক্রফট। নামটা পরিচিতই হওয়ার কথা সবার কাছে। গত বছর মার্চে দক্ষিণ আফ্রিকার নিউল্যান্ডস স্টেডিয়ামে বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির ঘটনা ঘটিয়েছিলেন তিনিই। যে কারণে অন্য দুই হোতা স্টিভেন স্মিথ আর ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয় তাকে।

যদিও স্মিথ-ওয়ার্নারের চেয়ে তিন মাস কম শাস্তি ছিল তার। ৯ মাসের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে গত ডিসেম্বরেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার সুযোগ পেয়ে গেছেন বেনক্রফট। যদিও তাকে এই মুহূর্তেই জাতীয় দলে ফেরানো হয়নি। তিনি সুযোগ পেয়েছেন চলমান বিগব্যাশ লিগে খেলার।

সেখানেই অবশেষে ব্যাট হাতে জ্বলে উঠলেন তিনি এবং তার ব্যাটেই দারুণ এক জয় পেয়েছে পার্থ স্কোরচার্স। ঘরের মাঠ পার্থে তারা মুখোমুখি হয়েছিল সিডনি সিক্সার্সের। বেনক্রফটের অসাধারণ ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করে ৭ উইকেটে সিডনিকে হারিয়েছে পার্থ স্কোরচার্স।

টস জিতে পার্থ স্কোরচার্সের অধিনায়ক অ্যাস্টন টার্নার প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন। ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান সিডনি সিক্সার্সকে। ব্যাট করতে নেমে মইসেস হেনরিক্সের ৩৮ আর ড্যানিয়েল হিউজেসের ৩৬ রানের ওপর ভর করে সিডনি ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রানের বিশাল স্কোর গড়ে তোলে।

জবাব দিতে নেমে শুরুতে মিচেল ক্লিংগারের উইকেট হারিয়ে বসলেও বেনক্রফট আর স্যাম হোয়াইটম্যান মিলে ঝড় তোলেন। ১৭ বলে ২২ রান করে হোয়াইটম্যান আউট হয়ে গেলেও টার্নারকে নিয়ে বেনক্রফট সিডনি সিক্সার্সকে পুরোপুরি ম্যাচ থেকে বের করে দেন। ৬১ বলে ৮৭ রান করে অপরাজিত থাকেন বেনক্রফট। ৮টি বাউন্ডারির সঙ্গে ১টি ছক্কার মার মারেন তিনি।

তবে বেনক্রফটের চেয়েও বেশি বিধ্বংসী ছিলেন অ্যাস্টন টার্নার। ৩০ বলে ৬০ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। ৪টি বাউন্ডারির সঙ্গে ছক্কা মারেন ৩টি। শেষ পর্যন্ত ৩ উইকেট হারিয়ে ৭ বল হাতে রেখেই (১৮.৫ ওভারে) জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় পার্থ স্কোরচার্স। ম্যাচ সেরার পুরস্কার ওঠে ক্যামেরন বেনক্রফটের হাতেই।

আইএইচএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :