ফুটবল পায়ে সাকিবদের সঙ্গে রসিকতা ওয়ার্নারের, হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড়

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:১৬ পিএম, ২৩ মার্চ ২০১৯

ডেভিড ওয়ার্নারের মুখে সবসময় যেন একটা হাসি লেগেই থাকে। তিন বছর আগে সানরাইজার্স হায়দরাদকে নেতৃত্ব দিয়ে শিরোপা জিতিয়েছিলেন। তখন হায়দরাবাদে ছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। বাংলাদেশি পেসারের সঙ্গে কত খুনসুটি, দুষ্টুমি চলেছে। মোস্তাফিজও বারবার অধিনায়কের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথা বলেছেন।

এখন মোস্তাফিজ হায়দরাবাদে নেই। তবে হায়দরাবাদ শিবিরে গত মৌসুম থেকে আছেন সাকিব আল হাসান। ওয়ার্নার গতবার ছিলেন না। বল টেম্পারিং কাণ্ডে আইপিএলের বাইরে ছিলেন। বিরতি দিয়ে ফিরেছেন। মাঝে অনেক ঝড় ঝঞ্জা বয়ে গেছে তার উপর। কিন্তু দুষ্টুমি আর হাসিখুশি ভাবটা মুখ থেকে মিলিয়ে যায়নি ওয়ার্নারের।

আজ (শনিবার) থেকে শুরু হচ্ছে আইপিএল। হায়দরাবাদের ম্যাচ রোববার, কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ইডেন গার্ডেনসে। সে ম্যাচকে সামনে বৃহস্পতিবার রাতেই দলবলসহ কলকাতা চলে গেছে হায়দরাবাদ। যেখানে আছেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসানও।

শুক্রবার বিকেলে ইডেনে হাজির হয়ে দলের সবার আগে মাঠে নেমে পড়েছিলেন ওয়ার্নারই। তার পরে নেটের উল্টো দিকে মাঠের মাঝখানে রাখা সাইটস্ক্রিনের পিছনে ফিজিক্যাল ট্রেনার ও ফিজিয়োর সামনে খালি গায়ে দৌড়। পরে স্ট্রেচিং করে ফিরেছিলেন ড্রেসিংরুমে।

আধঘণ্টা পরে যখন চুইংগাম চিবোতে চিবোতে মাঠে এলেন, ওয়ার্নারের পায়ে তখন ফুটবল। বল নাচাতে নাচাতেই সতীর্থ সাকিব আল হাসান, ইউসুফ পাঠানদের সঙ্গে চলছিল তার নানা ধরণের রসিকতা। হঠাৎ ধেয়ে এলো কালবৈশাখী ঝড়। ফলে নেটে ব্যাট করার সুযোগ হয়নি ওয়ার্নারের।

তবে অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক যে বিরতির পর দলে ফিরেছেন, তাতেই খুশি হায়দরাবাদ শিবির। দলের মেন্টর ভি ভি এস লক্ষ্মণ বলেন, ‘এ বার শিবিরে শুরু থেকেই ওয়ার্নারকে ইতিবাচক লাগছে। গত বছরের দুঃখজনক অধ্যায় পেরিয়ে এবার সানরাইজার্সের জন্য বড় রান করতে মুখিয়ে রয়েছে ও। ওয়ার্নারের এই মরিয়া তাগিদ ট্রফি আনতে দলের অন্যতম সেরা অস্ত্র হবে।’

এমএমআর/এমকেএইচ