কেমোথেরাপি নিতে সিঙ্গাপুরে মোশাররফ রুবেল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৩ পিএম, ২২ এপ্রিল ২০১৯

ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত হওয়ার পর সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে গিয়ে অস্ত্রোপচার করিয়েছিলেন জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার মোশাররফ রুবেল। এরপর বায়োপসি রিপোর্টে জানা গেলো, শঙ্কামুক্ত তিনি। টিউমারে ক্যান্সারের কোনো জীবানু নেই।

তবে ওই সময়ই বলা হয়েছে, ভবিষ্যতে যাতে আর টিউমার মাথাচাড়া না দিয়ে ওঠে কিংবা ক্যান্সার জন্মানোর সম্ভাবনা তৈরি না হয়, সে জন্য ৫০টি কেমো এবং ৩০টি রেডিওথেরাপি দিতে হবে। ছয় মাসের মধ্যেই নিয়ম করে এই থেরাপিগুলো দিতে হবে তাকে। যদিও এটা খুবই ব্যায়বহুল। ৫০-৬০ লাখ টাকা লাগার কথা।

মাথায় অস্ত্রোপচারের পর গত ৩০ মার্চ দেশে ফিরে আসেন মোশাররফ রুবেল। এখানে এসে কেমো এবং রেডিওথেরাপির জন্য টাকা সংগ্রহ করতে থাকেন রুবেল। অবশেষে কেমোথেরাপি দিতে আজ সিঙ্গাপুর গিয়ে পৌঁছেছেন রুবেল।

ফেসবুক আইডিতে রুবেল নিজেই জানিয়েছেন এ তথ্য। তবে কবে থেকে কেমো থেরাপি শুরু করবেন কিংবা আদৌ শুরু করেছেন কি না, সে তথ্য জানাননি রুবেল। যদিও পোস্ট করা ছবি দেখে বোঝাই যাচ্ছে, থেরাপি শুরু করে দিয়েছেন তিনি।

নিজের ফেসবুক পোস্টে রুবেল জানিয়েছেন, ‘কেমোথেরাপি এবং রেডিওথেরাপি নিতে সিঙ্গাপুর আসছি। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন।’

একই পোস্টে কিছুটা আক্ষেপ ঝরে পড়লো রুবেলের কণ্ঠ থেকে, বিশ্বকাপের খেলা দেখতে যেতে পারবেন না বলে। সেখানেই তিনি লিখেছেন, ‘এবার ওয়ার্ল্ড কাপের খেলা মাঠে বসে দেখার খুব ইচ্ছা ছিল। বিপিএলের সময় সাইফুদ্দিন বলেছিল, যদি ওয়ার্ল্ডকাপের টিমে থাকে, তাহলে সব টিকেট আপনাকে দিবো। ইচ্ছে আর বাস্তবতা কখনো এক হয় না এটা জানা ছিল। কিন্তু বাস্তবতা যে কতটা নিষ্ঠুর হতে পারে, এটা কল্পনাতেও আসেনি। যাই হোক, অল দ্য বেস্ট টিম বাংলাদেশ। ইনশাআল্লাহ, ভালো কিছু হবে এবার।’

আইএইচএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :