সেই ‘দ্য ভিলেজে’ ফিরেই ম্যাচসেরা মোস্তাফিজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩৪ এএম, ১৪ মে ২০১৯

আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনে মালাহাইড ‘দ্য ভিলেজ’ এর সঙ্গে হয়তো আলাদা কোনো সখ্যতা রয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বাঁহাতি কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমানের। এ মাঠে খেলতে নামলে বাড়তি একটা অনুপ্রেরণা হয়তো তিনিই পেয়েই থাকেন।

তাই তো দুই বছর ধরে যে খুব কাছে গিয়েও ম্যাচসেরা পুরষ্কার তিনি পাচ্ছিলেন না, সে অপূর্ণতা কাটলো এই দ্য ভিলেজ মাঠেই। সোমবার ত্রিদেশীয় সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশের ৫ উইকেটের জয়ে সেরা খেলোয়াড়ের পুরষ্কার জিতেছেন মোস্তাফিজ।

এর আগে শেষবার তিনি ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছিলেন এই একই মাঠে। সেটি প্রায় বছর দুয়েক আগে, ১৯ মে ২০১৭ তারিখে। এবারের মতোই আরেক ত্রিদেশীয় সিরিজে সেবার প্রতিপক্ষ ছিলো আয়ারল্যান্ড।

সেই ম্যাচে হেসেখেলে জিতেছিল মাশরাফিরা। চলতি ত্রিদেশীয় সিরিজে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে যে ব্যবধানে জিতেছে টাইগাররা, ২০১৭ সালে ঠিক সেই ৮ উইকেটে আইরিশদের হারিয়েছিল বাংলাদেশ।

সোমবার ক্যারিবীয়দের বিরুদ্ধে যেমন টিম পারফরম্যান্সে ধরা দিয়েছে সহজ ও অনায়াস জয়। দু’বছর আগে এই ‘দ্য ভিলেজেও’ আইরিশদের বিপক্ষে তেমন সম্মিলিত প্রচেষ্টা ও দারুণ টিম পারফরমেন্সে জিতেছিল বাংলাদেশ।

সে ম্যাচের হিরো ছিলেন দু’জন; বল হাতে মোস্তাফিজুর রহমান এবং ব্যাট হাতে সৌম্য সরকার। কাটার মাস্টার বল হাতে জ্বলে উঠে প্রথম সেশনেই আইরিশদের ব্যাটিং মেরুদন্ড ভেঙ্গে গড়ে দিয়েছিলেন জয়ের ভিত । আয়ারল্যান্ডের বিপজ্জনক ওপেনার স্টারলিংকে নিজের প্রথম ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের তৃতীয় বলে শূন্য রানে ফেরত পাঠিয়ে বোলিং তান্ডব শুরু করে কাটার মাস্টার।

এরপর মিডল অর্ডারের ওপরও আঘাত হানেন এ বাঁ-হাতি পেসার। তার বিষাক্ত সুইং ও কাটারে (৯-২-২৩-৪) আয়ারল্যান্ডের একজন ব্যাটসম্যানও মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেননি। দুর্দান্ত এ স্পেলের কারণে পরে সৌম্যর ৬৮ বলে ৮৭ রানের ইনিংস ছাপিয়ে ম্যাচসেরার পুরষ্কারটিও জিতেছিলেন মোস্তাফিজ।

বছর দুয়েক পরে পুনরায় একই মাঠে খেলতে নেমেই ফের বাজিমাত মোস্তাফিজের। এবারও তিনি নিয়েছেন ৪ উইকেট, তবে খরচ করেছেন ৪৩ রান। তাতে কি? ক্যারিবীয়দের ২৪৮ রানে আটকে রাখতে অগ্রণী ভূমিকা ছিলো দ্য ফিজের এই ৪ উইকেটের। তাই তো মাশরাফির ৩ উইকেট কিংবা সৌম্য-মুশফিকের ফিফটি ছাপিয়ে এদিন আবার ম্যাচসেরা নির্বাচিত হলেন মোস্তাফিজ।

ম্যাচের পর পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসে কোনো কথা বলেননি মোস্তাফিজ। তবে পরে আয়ারল্যান্ডে উপস্থিত সাংবাদিকদের নিজের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে মোস্তাফিজ বলেন, ‘ভালো লাগছে, অনেক দিন পর (ম্যান অব দা ম্যাচ) পেলাম। প্রথম উইকেট পাওয়ার পর আত্মবিশ্বাস পেয়ে গিয়েছিলাম। আর স্লগ ওভারে তো বল করতে করতে অভ্যস্ত হয়ে গেছি এখন। পরেরটা (ম্যান অব দা ম্যাচ) এত দেরিতে না পেলেই হয়!’

এসএএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :