শূন্য রানে সাজঘরে দশজন, দলের সংগ্রহ মাত্র ৪ রান

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:০৩ পিএম, ১৬ মে ২০১৯

গৌরবময় অনিশ্চয়তার খেলা ক্রিকেট। তবে প্রতিবারই অনিশ্চয়তা এনে দেবে ‘গৌরব’- তা জোর গলায় বলতে পারবে না কেউ। অন্তত ভারতের কেরালা রাজ্যের কাসারগোদ অনুর্ধ্ব-১৯ নারী দলের সদস্যরা তো তা বলবেন না কখনোই। কেননা তারা যে সাক্ষী হয়েছেন অপ্রত্যাশিত এক ঘটনার, যা হয়তো আর কখনোই ঘটতে দেখতে চাইবেন না তারা।

শুনতে অবিশ্বাস্য মনে হলেও মাত্র ৪ রানে অলআউট হয়েছে কাসারগোদ অনুর্ধ্ব-১৯ নারী দল। গত বুধবার ভারতীয় অনুর্ধ্ব-১৯ মহিলা দল কাসারগোদের ম্যাচ ছিল ওয়ানন্দ অনুর্ধ্ব-১৯ দলের সঙ্গে। সে ম্যাচে রানের খাতা খুলতে পারেননি কাসারগোদের কোনো ব্যাটার।

ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিং করতে নেমে কাসারগোদের মেয়েরা গড়ে এ অনন্য কীর্তি, দলের সব খেলোয়াড় সাজঘরে ফিরেন ব্যক্তিগত শূন্য রানে। দলের এগারজন ব্যাটারের কেউই খুলতে পারেননি রানের খাতা! কেউ রানের খাতা খুলতে না পারলেও এমন ভূতুড়ে ইনিংসের শেষে তাদের স্কোরবোর্ডে সংগ্রহ ছিল ৪ রান, যার সবকটিই অতিরিক্ত! সম্পূর্ণ ম্যাচে কাসারগোদের এটাই ছিল একমাত্র অর্জন।

বিসিসিআই এর উইম্যান ফরমেট- নর্থ জোন ইন্টার ডিস্ট্রিক্ট টুর্নামেন্টের এই ম্যাচটি সাক্ষী হয় বিরল এই রেকর্ডের! ব্যাটিংয়ে নেমেই ওয়ানন্দ বোলারদের তোপের মুখে পড়তে হয় কাসারগোদের মেয়েদের।

প্রথম দুই ওভার কোনরকমে পার করলেও ৩য় ওভারে এসেই ভোজবাজির মতো পাল্টে যেতে থাকে ম্যাচের চিত্র। সে ওভারেই কাসারগোদের মেয়েরা হারিয়ে বসে ৩ উইকেট। তারপর আর সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি তারা।

একের পর এক ব্যাটার পিচে আসলেন আর ক্যান্ডিফ্লসের মতো চোখের পলকেই মিলিয়ে গেলেন। সেদিন ওয়ানন্দের প্রতিটি বোলারই যেন হয়ে উঠলেন একেকজন অতিদানব। জোশিতা, নিথিয়াদের আগুনঝরা বোলিংয়ে ধোপে টেকেনি কাসারগোদের ব্যাটিং লাইন আপ। এক ভিজে জোশিথাই হ্যাট্রিক সহ এক ওভারে নিয়েছিলেন ৪ উইকেট!

এমন ম্যাচের পর কাসারগোদ ডিস্ট্রিক্ট অ্যাসোশিয়েসনের সেক্রেটারির কন্ঠে ছিল আক্ষেপ এবং হতাশার সুর। তার দলে নেই কোন কোচ বা ম্যানেজার। দলের সিনিয়র খেলোয়াড়রাই দল ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

তবে কখনোই এমন বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়নি তাদের। দলকে সুসংগঠিত এবং নির্ভরযোগ্য করে তোলার আশ্বাস দিয়েছিলেন তিনি। তবে আর যা ই হোক, এমন লজ্জাস্কর রেকর্ড কাসারগোদের সমর্থকরা মনে রাখবে অনেকদিন।

এসএএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :