সাইফউদ্দিনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত সাত দিন পর

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:০৬ পিএম, ১৯ আগস্ট ২০১৯

আচ্ছা সাইফউদ্দিন কি বাংলাদেশ, জিম্বাবুয়ে আর আফগানিস্তানকে নিয়ে যে তিন জাতি-টি টোয়েন্টি ক্রিকেট হবে, তাতে অংশ নিতে পারবেন? ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরুর আগেই ইনজুরি কাটিয়ে সম্পূর্ণ ফিট হয়ে উঠতে পারবেন এ পেস বোলিং অলরাউন্ডার?

আজ (সোমবার) কন্ডিশনিং ক্যাম্পের প্রথম দিন দুপুরে ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়নের কথা শুনে মনে হচ্ছিলো সাইফউদ্দিন শতভাগ না হলেও মোটামুটি সুস্থ। কিন্তু ঠিক দুপুরে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানালেন অন্য কথা। সেটা শুনে মনে হলো দুজনার ভাষ্য দুরকম।

মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর কথা শুনে মনে হলো সাইফউদ্দিন এখনও সুস্থ্ নন। সেই বিশ্বকাপের মাঝামাঝি সময় থেকে যে ইনজুরি বয়ে বেড়াচ্ছেন এ পেস বোলিং অলরাউন্ডার, তা এখনও কাটিয়ে ওঠেননি এবং উঠতে আরও সময় লাগবে।

নান্নু পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, সাইফউদ্দিন এখন যে কন্ডিশনিং ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন, তাতে শুধু ফিজিক্যাল ট্রেনিং আর রানিং করতে পারবে। কোন ক্রিকেটীয় কর্মকান্ড তথা ব্যাটিং ও বোলিং করতে পারবে না। এবং সেটা আজ কাল বা দু এক দিনের মধ্যেও সম্ভব না। অন্তত আরও এক সপ্তাহ অপেক্ষায় থাকতে হবে। সাতদিন পর ডাক্তার তার অবস্থা বুঝে জানাবেন।

আজ শেরে বাংলায় উপস্থিত সাংবাদিকদের সাথে আলাপে নান্নু বলেন, ‘চিকিৎসকরা প্রথম সাইফউদ্দিনের সম্পর্কে যে আপডেট আমাদেরকে দেয়, তাতে বলা হয়েছিল সে কিছুই করতে পারবে না। তাই ঈদের আগে আমরা যখন দল জমা দেই বোর্ডে, তখন তার নাম দেয়া হয়নি। ঈদের পর যখন রিকভারি করল, তখন পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ডাক্তার বলল ও কন্ডিশনিংটা করতে পারবে। তাই ওকে সাথে সাথে নেয়া হয়েছে। তবে এখন সে শুধু রানিংটা করতে পারবে। রানিংটা করার যখন গ্রিন সিগন্যাল পেলাম তখন আমরা ওকে নিলাম।’

সাইফউদ্দিন সম্পর্কে প্রধান নির্বাচকের শেষ কথা, ‘সে এখন ব্যাটিং, বোলিং করতে পারবে না। অপেক্ষা করতে হবে। এক সপ্তাহের মধ্যে ডাক্তারের আপডেট এলে পরবর্তীতে বলা যাবে।’

এআরবি/এসএএস/এমকেএইচ