মোহামেডানের হয়ে প্রিমিয়ার লিগ খেলবেন সাকিব!

আরিফুর রহমান বাবু
আরিফুর রহমান বাবু আরিফুর রহমান বাবু , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০১:৫৮ পিএম, ০৫ মে ২০২১

সবকিছু নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির ওপর। করোনার ভয়াবহতা কমে গেলে হয়তো মে মাসের শেষ ভাগে অথবা আগামী জুনের প্রথম দিকেই মাঠে গড়াবে ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ। বিসিবি থেকে জানানো হয়েছে ৩১ মে শুরু প্রিমিয়ার লিগ।

আগেই জানা, খেলা হবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে এবং আগের বারের দলবদলে। অর্থাৎ ২০২০ সালের দলবদলে যে ক্রিকেটার যেখানে ছিলেন, এবারের লিগেও তারা সেই দলেই খেলবেন।

এখন প্রশ্ন উঠেছে-যদি তাই হয়, তাহলে সাকিব আল হাসান কোন দলে খেলবেন? আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কারণে গতবার দলবদলের বাইরে ছিলেন দেশসেরা অলরাউন্ডার। এখন ৩১ মে‘ই হোক কিংবা তার ৩-৪ দিন পরই শুরু হোক, ঢাকা লিগে সাকিবের দল কী হবে? তিনি তো এখন মুক্ত। আইপিএল খেলে দেশে ফেরার অপেক্ষায়। সময়মত দেশে ফিরতে পারলে হয়তো মাসের শেষদিকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খেলবেন।

তার পরপরই শুরু হবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের প্রিমিয়ার লিগ। সেখানে সাকিবের দল কী হবে? যেহেতু তিনি এখন নিষেধাজ্ঞামুক্ত, তাহলে তার খেলায় আর কোনই জটিলতা নেই। কিন্তু আগেরবারের দল বদলের বাইরে থাকায় খানিক সংশয় তৈরি হয়েছে।

তবে ভেতরের খবর, সাকিব প্রিমিয়ার লিগ খেলবেন। তাকে সম্ভবত মোহামেডডানের হয়ে খেলতে দেখা যাবে। একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, সাকিবের সাথে মোহামেডানের কথাবার্তা চলছে। মোহামেডানও বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে নিজেদের দলে পেতে আগ্রহী।

সামনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। সাকিবও এই ফরমেটের ঢাকা লিগ খেলতে মুখিয়ে আছেন। বিশ্বকাপের আগের লিগ খেলাটাকে সাকিব ভালো প্রস্তুতি বলেই মনে করছেন।

মোহামেডান এবং সাকিবের ঘনিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, দুই পক্ষের মধ্যে কথাবার্তা চলছে। তবে এখনও সাকিবের পারিশ্রমিকটা চূড়ান্ত হয়নি। সেটা তিনি দেশে ফেরার পরপরই রফা হয়ে যাবে।

কিন্তু গতবার দলবদলের বাইরে থেকেও এবার কি আসলেই সাকিবের পক্ষে খেলা সম্ভব হবে? জবাব একটাই, যেহেতু সামনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, তাই দেশের ক্রিকেটের স্বার্থেই সাকিবকে লিগ খেলতে দেয়ার সুযোগ করে দেবে বিসিবি এবং সেটা প্রয়োজনে আইন সংশোধন করে হলেও।

আরও একটা পয়েন্ট আছে। তা হলো, মোহামেডানের গতবারের অধিনায়ক ও প্রধান স্পিনার ছিলেন আব্দুর রাজ্জাক। জাতীয় দলের এই বাঁহাতি স্পিনার এখন বিসিবির নির্বাচক কমিটির অন্যতম সদস্য। কাজেই মোহামেডানের কোটায় একজন ক্রিকেটার কমে গেছে। মোহামেডান তাই সাকিবকে দিয়ে ওই শূন্যস্থান পূরণে যারপরনাই আগ্রহী। এখন সিসিডিএম ও লিগ কমিটি কর্তৃপক্ষও মোহামেডানকে বাড়তি খেলোয়াড় না দিয়ে পারবে না।

ফলে সাকিবের জন্য মোহামেডানে যোগ দেয়ার রাস্তাটা পরিষ্কার। যতদূর জানা গেছে, দর-দামে বনিবনা হয়ে গেলেই দেশ তথা বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার মোহামেডানে যোগ দেবেন।

এআরবি/এমএমআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]