ইনিংসটা আরও বড় হলে দলের জন্য ভালো হতো: লিটন

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:২২ পিএম, ২৭ নভেম্বর ২০২১

সেই ২০১৫ সালের জুনে ভারতের বিপক্ষে শুরু। এরপর কেটে গেছে ৬টি বছর। খেলেছেন ২৫টি টেস্ট। অবশেষে গতকাল ২৬ নভেম্বর শুক্রবার শেরে বাংলায় ২৬তম টেস্টে এসে মিলেছে প্রথম শতকের দেখা।

অবশ্য এইতো মাস তিনেক আগে হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাত্র ৫ রানের জন্য পারেননি। তিন মাস পর এবার সেই কাঙ্খিত শতক পূর্ণ করলেন লিটন। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুবিধা করতে পারেননি। ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়ে অনেক তীর্যক কথা, সমালোচনা এমনকি গালমন্দও শুনেছেন।

তারচেয়ে বড় কথা তাকে পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকেও বাদ দেয়া হয় তাকে। এমন মানসিক চাপ সহ্য করেও লিটন বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন।

যখন উইকেটে যান তখন ৪৯ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল টাইগাররা; কিন্তু সিনিয়র পার্টনার মুশফিকুর রহিমের সাথে জুটি গড়ে লিটন দলকে কঠিন বিপদ থেকে টেনে তুলেছেন।

প্রথম দিন ১১৩ রানে নট আউট এ উইলোবাজ আজ শনিবার দ্বিতীয় দিন আর বেশি সময় ব্যাট করতে পারেননি। সকালে হাসান আলির প্রথম ওভারেই ফিরে গেছেন। অফস্ট্যাম্পের বাইরে কয়েকটি আউট সুইং দিয়ে হঠাৎ ইন সুইংয়ে লিটনকে লেগবিফোর উইকেটের ফাঁদে ফেলেন হাসান আলি। ১১৪ রানে সাজ ফেরেন তিনি।

সংকট, বিপদে নানা প্রতিকুল অবস্থায় মানসিক স্থিরতাও গিয়ে থাকবে কমে। এমন পরিস্থিতিতে ব্যাট করতে নেমে প্রথম শতক, কেমন লাগছে?

লিটন দাসের ভাবলেশহীন জবাব, ‘অনুভূতি তো সব সময় ভালো। কোন ব্যাটসম্যান যদি সেঞ্চুরি করে তার থেকে বড় কিছু থাকে না পাওয়ার। গত দুই-তিনটা ম্যাচে আমি কাছাকাছি গিয়েছিলাম, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে গেমটাতেও কাছাকাছি গিয়েছিলাম। কিন্তু হয়নি। এটা ক্রিকেটেরই অংশ। এখন সেঞ্চুরি করেছি ভাল লাগছে।’

তবে পাওয়ার মাঝে আছে না পারার আক্ষেপও। লিটন মনে করেন, তার আজ সকাল সকাল আউট হয়ে যাওয়াটা দলের জন্য ক্ষতি হয়েছে। তাই দিন শেষে কন্ঠে আক্ষেপ, ‘আমি যদি ইনিংসটা আরেকটু বড় করতে পারতাম তাহলে হয়ত দলের জন্য ভাল হতো।'

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর পাকিস্তানের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি সিরিজে দল থেকে বাদ দেয়া নিয়ে কিছু বলতে বলা হলে লিটন বলেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে যে জন্য আমাকে ব্রেক দিয়েছিল হয়ত সেটাই হয়েছে মেইন রেজাল্ট। হয়ত তারা (টিম ম্যানেজমেন্ট) ভেবেছিল আমি টেস্ট ক্রিকেটে ভাল করি, এজন্য টি-টোয়েন্টিতে ব্রেক দিয়েছিলেন।'

এআরবি/আইএইচএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]