সাকিবের ‘বড় দল’কে হারাতে চান মিরাজ

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১২:১১ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০২২

করোনা সংক্রমণ বাড়ছে হু হু করে। চারিদিকে অস্থিরতা, আতঙ্ক। পরিস্থিতি মোকাবিলায় আরও আগেই সামাজিক, রাজনৈতিক আর ধর্মীয় সমাবেশ নিষিদ্ধ করেছে সরকার।

এখনও সে নিষেধাজ্ঞা বলবৎ আছে। এরকম অবস্থায় দর্শকশূন্য শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে আজ ২১ জানুয়ারি দুপুরে পর্দা উঠছে বঙ্গবন্ধু বিপিএল ২০২২-এর।

সাকিব আল হাসানের ফরচুন বরিশাল আর মেহেদি হাসান মিরাজের চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে এবারের বিপিএলের মাঠের লড়াই। শুক্রবার খেলা শুরু হবে দুপুর দেড়টায়।

আজ সন্ধ্যায় অপর খেলায় মুখোমুখি হচ্ছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, তামিম ইকবাল, মাশরাফি বিন মর্তুজার দল মিনিস্টার ঢাকা আর মুশফিকুর রহিমের খুলনা টাইগার্স। ওই ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায়।

ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল আর স্পিন ‘তুরুপের তাস’ মুজিব উর রহমান আসেননি এখনও। তবে টি-টোয়েন্টি স্পেশালিস্ট অলরাউন্ডার ডোয়াইন ব্রাভো এবং ক্যারিবীয় ফাস্টবোলার আলজেরি জোসেফ আছেন। আছেন ইংলিশ লেফট আর্ম চায়নাম্যান জ্যাক লিনটটও। আর সাকিব তো নিজে টি-টোয়েন্টির বিশ্বসেরাদের একজন।

স্বদেশিদের মধ্যেও সাকিবের দলে প্রতিষ্ঠিত সব নাম। নাজমুল হোসেন শান্ত, ফজলে রাব্বি, নুরুল হাসান সোহান, সৈকত আলী, তৌহিদ হৃদয়, মেহেদি হাসান রানা, ইরফান শুক্কুর, নাইম হাসানদের সঙ্গে আছেন অভিজ্ঞ হার্ডহিটিং অলরাউন্ডার জিয়াউর রহমানও।

সেই তুলনায় প্রতিপক্ষ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স পুরোই তারুণ্যনির্ভর। অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজের নেতৃত্ব চট্টগ্রামে আছেন নাসুম আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, আফিফ হোসেন ধ্রুব, শামীম পাটোয়ারী, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, রেজাউর রহমান রাজা, সাব্বির রহমান রুম্মন, মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী, আকবর আলি, নাঈম ইসলামরা। এখানে নাঈম আর সাব্বির ছাড়া বলতে গেলে সবাই তরুণ।

তাদের সঙ্গে দলটির সম্ভাব্য ফরেন রিক্রুট উইল জ্যাক্স (টপ অর্ডার ব্যাটার), বেনি হাওয়েল (ব্যাটার), কেন্নার লুইস (মারকুটে ব্যাটার) আর রায়াত এমরিট (অলরাউন্ডার)।

শক্তি আর অভিজ্ঞতার বিচারে সাকিবের ফরচুন বরিশালই এই ম্যাচে ফেবারিট। প্রতিপক্ষকে বড় দল মানতে আপত্তি নেই চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজের। তবে মাঠের লড়াইয়ে নিজেদের পিছিয়ে রাখতে চান না তিনি।

চট্টগ্রাম অধিনায়কের কথা, ‘বরিশাল অনেক ভালো দল। সাকিব ভাই আছে, আরও অনেক ভালো খেলোয়াড় আছে। তবে দিন শেষে মাঠে যারা ভালো খেলবে তারাই জিতবে। বড় দল, ছোট দল বলে কোনো কথা নেই।’

নিজ দলে বর্তমান জাতীয় দলের অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন ধ্রুব, ফাস্টবোলার শরিফুল ইসলাম এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলা শামীম পাটোয়ারীর মত পারফরমার আছে জানিয়ে মিরাজ বলেন, ‘আমাদের দলে বেশ কিছু খেলোয়াড় আছে জাতীয় দলের। যারা বর্তমানে টি-টোয়েন্টি দলে প্রতিনিধিত্ব করছে এবং খুব ভালো কজন তরুণ প্রতিভাবান খেলোয়াড়ও আছে।’

এআরবি/এমএমআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]