মনোনয়নবঞ্চিত ফুটবলার আমিনুল হক

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:৪৯ পিএম, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে লড়ছেন এক ঝাঁক ক্রীড়াবিদ-ক্রীড়া সংগঠক। সাবেক তারকা ফুটবলার আবদুস সালাম মুর্শেদী, সাবেক ক্রিকেটার নাঈমুর রহমান দুর্জয় এবং এ সময়ের জনপ্রিয় ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মর্তুজা ভোটের মাঠে নৌকা প্রতীক নিয়ে।

ভোটের মাঠে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তুলনায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলে (বিএনপি) ক্রীড়াবিদ-ক্রীড়া সংগঠক অনেক কম। যারা আছেন তাদের মধ্যে একজন মাশরাফি, সালাম মুর্শেদী কিংবা দুর্জয়ের মতো মুখ নেই। জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক আমিনুল হকের বিএনপির মনোনয়ন পাওয়ার সম্ভাবনা থাকলেও পাননি।

মনোনয়ন চাওয়া থেকে শুরু করে দুই দিন আগ পর্যন্তও ঢাকা-১৪ আসনে তার মনোনয়ন পাওয়া নিশ্চিতের খবরই ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে আমিনুলের পরিবর্তে বিএনপি সেখানে মনোনয়ন দিয়েছে সৈয়দ আবু বকর সিদ্দিক সাজুকে। তিনি সাবেক সাংসদ এসএ খালেকের পুত্র।

দুই জনই বিএনপির চিঠি নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। আমিনুল হক বিএনপির যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক, সৈয়দ আবু বকর সিদ্দিক সাজু শাহ আলী থানার সিনিয়র সহ সভাপতি। ফুটবলার আমিনুল তরুণ প্রজন্মের কাছেও জনপ্রিয় মুখ। আমিনুল হকের ঘনিষ্টসূত্র জানিয়েছিল, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তারেক রহমানের নেকনজর ছিল সাবেক এ তারকা ফুটবলারের ওপর। সব কিছু মিলিয়ে মানোনয়ন পাওয়ার দৌড়ে তিনিই ছিলেন এগিয়ে।

সবুজ সংকেত পেয়ে আমিনুলও মনোযোগ দিয়েছিলেন প্রচার-প্রচারণায়। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সব ওলট-পালট হয়ে যায়। আমিনুল হক মনোনয়ন না পাওয়ায় তার ভক্তরা ও তরুণ প্রজন্ম রীতিমতো হতাশ।

ষাটের দশকের মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বিএনপি থেকে নির্বাচন করছেন ভোলা-৩ আসন থেকে। ক্রীড়াবিদ বলতে ধানের শীষে এই একজনই। বিএনপির এ প্রজন্মের সমর্থকদের কাছে প্রিয় মুখ আমিনুল হক মনোনয়ন পাবেন, সেটা ধরেই নিয়েছিলেন অনেকে। তাহলে দুই প্রজন্মের দুই তারকা ফুটবলারের দারুণ এক সেতুবন্ধন হতো নির্বাচনী ময়দানে। কিন্তু দলের চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে সবাই হতাশ হয়েছেন।

শেষ মুহূর্তে মনোনয়নবঞ্চিত হওয়া আমিনুল হক কী বলছেন? ‘মনোনয়ন পাবো সেটা আমার ও তরুণ প্রজন্মের কাছে প্রত্যাশিত ছিল। মনোনয়ন না পাওয়ায় মন তো একটু খারাপ হবেই। তবে দলের স্বার্থে, দেশের স্বার্থে আমাদের সবকিছু মেনে নিতে হবে। আমরা এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি আন্দোলনের অংশ হিসেবে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার লক্ষ্যে। সব ভুলে এখন আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে ধানের শীষের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে কাজ করতে হবে’-বলেন দেশের অন্যতম সেরা এ গোলরক্ষক।

আরআই/এমএমআর/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :