সেই আরিফুল-এমিলির ব্রাদার্সে ফেরা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১১:১০ এএম, ১৩ এপ্রিল ২০২১

দুইজনের বাড়িই দক্ষিণবঙ্গে-আরিফুল ইসলামের বরিশাল সদরে, জাহিদ হাসান এমিলির পিরোজপুর। বয়স সমান ৩৩ বছর, ব্যক্তিগত জীবনেও ভালো বন্ধুত্ব। জাতীয় দল পেছনে ফেলে আসা দুই ফুটবলারের বড় অমিলটা পজিশনে-আরিফুল রক্ষণের আর এমিলি আক্রমণভাগের। ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে এসে দুইজন দাঁড়ালেন একই পতাকার নিচে। ব্রাদার্স ইউনিয়নের কমলা জার্সি পড়ে মাঠে নামবেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্বে।

ব্রাদার্স ইউনিয়ন দুইজনেরই পুরনো ক্লাব। এমিলির শীর্ষ লিগে অভিষেক হয়েছিল ব্রাদার্সের জার্সি পরে ২০০২ সালে, ছেড়েছেন ২০০৫ সালে। আরিফুল ইয়ংমেন্স, মোহামেডান হয়ে ব্রাদার্সে খেলেছিলেন ২০০৮ সালে। সময়ের হিসেবে এমিলি ১৬ বছর পর ফিরছেন কমলা জার্সিতে, আরিফুল ১৩ বছর পর।

ঘরোয়া ফুটবলে আরিফুল অনেক ক্লাবে খেলেছেন। মোহামেডান, ব্রাদার্স, ইয়ংমেন্স ছাড়াও তার গায়ে উঠেছে আবাহনী, শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র ও সাইফ স্পোর্টিংয়ের জার্সি। এমিলি মোহামেডান, আবাহনী, শেখ জামাল, শেখ রাসেল, চট্টগ্রাম আবাহনী ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রে খেলেছেন।

জাতীয় দলের লাল-সবুজ জার্সিতে দুইজন খেলেছেন দীর্ঘ সময়। আরিফুলের জাতীয় দলের শেষ টুর্নামেন্ট ছিল ২০১৩ সালে নেপালে অনুষ্ঠিত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ, এমিলির শেষ ম্যাচ ২০১৬ ভুটানের বিপক্ষে এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে।

পেশাদার লিগ প্রবর্তনের পর আরিফুল সবগুলো আসরে খেললেও ছেদ পড়েছিল এমিলির। সর্বশেষ মোহামেডানে খেলে গত পরিত্যক্ত মৌসুম আর চলমান মৌসুমের প্রথম পর্বে এমিলি ছিলেন দলহীন। লম্বা ক্যারিয়ারে অপ্রত্যাশিত বিরতি দিয়ে আবার বল পায়ে মাঠে নামবেন ঘরোয়া লিগে ৮০টির মতো ও জাতীয় দলের হয়ে ১৬ গোল করা স্ট্রাইকার এমিলি।

জাতীয় দল তো দুইজনের জন্যই অতীত। ঘরোয়া ফুটবলে কতদিন দেখা যাবে? বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে চিফ পেটি অফিসার পদে চাকরি করা জাহিদ হাসান এমিলি আশা করছেন, আরও দুই তিন মৌসুম ঘরোয়া ফুটবলে খেলবেন। তিনি বলেন, ‘একটা গ্যাপ হয়ে গেল। এখন চেষ্টা করব আরও ২-৩ বছর ফুটবল খেলতে।’

তবে আরিফুল ইসলাম ক্যারিয়ারটা আর বেশি টেনে নিতে চান না। তার কথা, ‘এবার যদি ভালো খেলে মৌসুমটা শেষ করতে পারি, তাহলে পরের মৌসুমটাই হবে আমার শেষ। কারণ, ফর্ম একদম না থাকলে খেলতে চাই না।’

এবারের ঘরোয়া মৌসুমটা ভালো যাচ্ছে না ব্রাদার্সের। ফেডারেশন কাপের গ্রুপপর্ব থেকে বিদায়ের পর প্রিমিয়ার লিগের রেলিগেশন অঞ্চলে কমলা জার্সিধারিরা। প্রথম পর্বের ১২ ম্যাচে মাত্র একটি জয় তাদের। ৫ পয়েন্ট নিয়ে ১৩ দলের মধ্যে টেবিলে ১২ নম্বরে দলটি। রেলিগেশন ফাঁদ থেকে বাঁচতে দ্বিতীয় পর্বে ক্লাবটি বেশ পরিবর্তন আনছে দলে।

চার বিদেশির মধ্যে তিনজনই বদলে ফেলছে ব্রাদার্স। মানডে, জুনাপিও ও স্যামসন ইলিয়াসুকে বিদায় করে ক্লাবটি দলে নিচ্ছে নতুন তিন বিদেশি-মমো দৌ বা, মাগালান ও সিরিল ওরিয়াকুকে।

এমিলি আর শেখ জামালের আরিফুল ছাড়াও ব্রাদার্স স্থানীয় ইমতিয়াজ সুলতান জিতু, সর্বশেষ বিজেএমসিতে খেলা আল আমিন ও পুলিশে খেলা সবুজকে দলে নিচ্ছে লিগের দ্বিতীয় পর্বের জন্য।

আরআই/এমএমআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]