জার্সি-ভাস্কর্যতে ম্যারাডোনাকে স্মরণ মেসিদের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩৩ এএম, ০৪ জুন ২০২১

আর্জেন্টিনা ফুটবলের মহানায়ক, লিওনেল মেসিরও গুরু। ডিয়েগো ম্যারাডোনারই যোগ্য উত্তরসূরী মনে করা হয় লিওনেল মেসিকে। মেসির খেলা ম্যারাডোনাও খুব পছন্দ করতেন, হয়তো তার মধ্যেই খুঁজে পেতেন নিজেকে।

উত্তরসূরীর কপালে যে কতবার স্নেহের চুমু এঁকেছেন তার হিসেব নেই। সেই ম্যারাডোনা আজ পৃথিবীতে নেই। বিশ্বের কোটি ফুটবল ভক্তকে কাঁদিয়ে গত ২৫ নভেম্বর না ফেরার দেশে পাড়ি জমান কিংবদন্তি এই ফুটবলার, মাত্র ৬০ বছর বয়সে।

ম্যারাডোনার এভাবে চলে যাওয়া এখনও মেনে নিতে পারছেন না ভক্তরা, মেসি কী করে পারবেন! স্বপ্নের নায়ককে স্মরণে তাই মনের অজান্তেই চোখ দুটো ছলছল করে উঠল আর্জেন্টাইন খুদেরাজের।

আজ ভোরে চিলির বিপক্ষে ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচ ছিল আর্জেন্টিনার। ম্যাচের আগে কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনাকে স্মরণে তার একটি ভাস্কর্য উম্মোচন করা হয় সান্তিয়াগো দেল এস্তেরোর ইউনিকো মাদ্রেস ডি সিওদাদেস স্টেডিয়ামে।

jagonews24

ব্রোঞ্জে গড়া যে ভাস্কর্যে কোমড়ে হাত দিয়ে আছেন ম্যারাডোনা, পায়ের কাছে তার ফুটবল। ভাস্কর্যের নিচে খোদাই করা ‌‘ডিয়েগো আরমান্দো ম্যারাডোনা ১৯৬০-২০২০।’ তার ঠিক পরেই একটি ‘অনন্ত’ পরিচায়ক চিহ্ন।

আর্জেন্টিনা সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে নেমেছিল গত বছরের অক্টোবরে। তার পরের মাসেই মারা যান ম্যারাডোনা। কিংবদন্তির মৃত্যুর পর প্রথমবারের মতো মাঠে নামা, শুধু ব্রোঞ্জের ভাস্কর্য উম্মোচনই নয়, ম্যারাডোনাকে সম্মান জানাতে ম্যাচের আগে তার ছবি সম্বলিত একটি বিশেষ জার্সি পরেছিলেন মেসিরা।

এমএমআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]