আমার প্রধান লক্ষ্য কমনওয়েলথ গেমসে স্বর্ণ

রফিকুল ইসলাম
রফিকুল ইসলাম রফিকুল ইসলাম , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:০১ পিএম, ২৬ আগস্ট ২০২১

২০১৬ সালে ভারতে অনুষ্ঠিত এসএ গেমসে বাংলাদেশ যে চারটি স্বর্ণ জিতেছিল, তার একটি এসেছিল শ্যুটার শাকিল আহমেদের হাত ধরে। তিনি জিতেছিলেন ৫০ মিটার পিস্তলে স্বর্ণ। প্রতিভাবান এই শ্যুটার বৃহস্পতিবার শেষ হওয়া বাংলাদেশ সেনাবাহিনী আন্তঃক্লাব শ্যুটিংয়ে পেয়েছেন সেরা শ্যুটারের পুরস্কার।

সাভার সেনা শ্যুটিং ক্লাবের এই শ্যুটার আগামী বছর অনুষ্ঠিতব্য কমনওয়েলথ গেমসে স্বর্ণ জয়ের লক্ষ্য নিয়ে অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন।

জাগো নিউজ : সেনাবাহিনী আন্তঃক্লাব শ্যুটিংয়ে সেরা হওয়ায় অভিনন্দন।
শাকিল : ধন্যবাদ। আমি দুটি ইভেন্টে অংশ নিয়েছিলাম। ১০ মিটারে স্বর্ণ ও ৫০ মিটারের রৌপ্য পেয়েছি।

জাগো নিউজ : ১০ মিটার পিস্তলে যে স্কোর করে স্বর্ণ জিতেছেন, তা নিয়ে আপনি সন্তুষ্ট?
শাকিল : স্কোর হয়েছে ৫৬৭। ৫৭০ করতে পারলে বেশি ভাল লাগতো।

জাগো নিউজ : ২০১৬ সালে স্বর্ণ জেতার পর আপনি নিজেকে সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি।
শাকিল : সর্বশেষ কমনওয়েলথ গেমসে আমি রৌপ্য জিতেছিলাম ৫৩৪ স্কোর করে। পরের বছর এশিয়ান শ্যুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে পঞ্চম হয়েছিলাম।

জাগো নিউজ : সর্বশেষ এসএ গেমসে আপনার দুটি পদক আছে। তবে ব্যক্তিগত ইভেন্টে নেই। পরের এসএ গেমসে কী লক্ষ্য আপনার?
শাকিল : লক্ষ্য তো একটাই, স্বর্ণ জেতা। নেপালে স্বর্ণ টার্গেট ছিল, পারিনি ফাইনাল খেলেও।

jagonews24

জাগো নিউজ : আগের কমনওয়েলথ গেমসে রৌপ্য জিতেছেন। আগামীতে নিশ্চয়ই সেটাকে স্বর্ণ বানানোর চেষ্টা করবেন?
শাকিল : অবশ্যই। আমি এসএ গেমসে ও কমনওলেথ গেমসে স্বর্ণ জেতার লক্ষ্য নিয়েই অনুশীলন করছি। তবে আমার প্রধান লক্ষ্য কমনওয়েলথ গেমস।

জাগো নিউজ : দুই বছর ধরে তো সেভাবে আন্তর্জাতিক আসর হচ্ছে না। অনলাইন শ্যুটিংয়ে বেশ কয়েকবার অংশ নিয়েছেন।
শাকিল : অনলাইন প্রতিযোগিতায় এরই মধ্যে তিনটি পদক পেয়েছি। যার দুটি সিলভার ও একটি ব্রোঞ্জ।

জাগো নিউজ : ধন্যবাদ।
শাকিল : আপনাকেও ধন্যবাদ।

আরআই/এসএএস/এমএমআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]