আইফোনের স্টোরেজ খালি করবেন যেভাবে

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৩১ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০২১

খুব গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত ফ্রেমবন্দি করতে গেলেন, এমন সময় দেখলেন আপনার ফোনটি স্টোরেজ ফুলের ওয়ার্নিং দিচ্ছে। খুবই সাধারণ একটি সমস্যা সবার জন্য। ফোনের স্টোরেজ ফুল হয়ে যাওয়া নতুন কোনো ঘটনা নয়। অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ, ছবি, ভিডিও, হাই গ্রাফিক্স গেমসের কারণে ফোনের স্টোরেজ দ্রুত ফুল হয়ে যায়। আর নতুন কোনো কিছু রাখতে গেলে দেখা দেয় বিপত্তি।

স্টোরেজ ফুল হয়ে যাওয়ার কারণে সাধের ফোনও স্লো হয়ে যায়। এজন্য মাঝে মাঝে ফোনের অপ্রয়োজনীয় অ্যাপসহ স্টোরেজ খালি করে ফেলুন। আইফোনে মেমোরি কার্ড ব্যবহারের সুবিধা না থাকায় এই সমস্যা আরো গুরুতর হয়ে পড়ে। আইফোনের স্টোরেজ ফুল হয়ে গেলে বিরক্তিকর “Storage Almost Full” নোটিফিকেশন দেখানো হয়।

এজন্য মাঝে মাঝে ফোনের অপ্রয়োজনীয় অ্যাপসহ স্টোরেজ খালি করে ফেলুন। খুব সাধারণ কিছু উপায়ে আইফোনের স্টোরেজ খালি করা যায়। জেনে নিন কীভাবে নিজেই কাজটি করতে পারবেন-

> বেশিরভাগ সময় দেখা যায় অপ্রয়োজনীয় ছবি ও ভিডিও অনেকখানি জায়গা দখল করে থাকে। তবে আইফোনের স্পেস খালি করতে সম্পূর্ণ ফটো লাইব্রেরি ক্লিন না করে, বেছে বেছে ছবি ডিলিট করুন।

> একই ধরনের একাধিক ছবি, একাধিকবার সেভ বা ডাউনলোড করা একই ছবি,হোয়াইট বোর্ড, নোট, চেক, ইত্যাদি জিনিসের ছবি অপ্রয়োজনীয় স্ক্রিনশট, বড় সাইজের অপ্রয়োজনীয় ভিডিও ডিলিট করে দিন।

> ক্রোম বা সাফারি এর মত ওয়েব ব্রাউজারসমূহ কিন্তু আপনার ভিজিট করা সাইটগুলোর ক্যাশ (Cache) ও অন্যান্য ডাটা সেভ করে রাখে। যার ফলে ফোনের স্টোরেজের বিশাল অংশ ব্রাউজারের ক্যাশের কারণে পূর্ণ হয়ে যায়। তাই সাফারি ও ক্রোমের ক্যাশ ক্লিয়ার করে আইফোনের স্টোরেজ খালি করা যায়।

> ব্রাউজারের অপ্রয়োজনীয় ডাটা খুব সহজে ক্লিয়ার করা গেলেও অনেক অ্যাপের ডাটা সরাসরি ক্লিয়ার করা যায়না। অনেক অ্যাপে দেখা যায় অনেক জিবি স্টোরেজ ডকুমেন্ট ও ডাটার জন্য স্টোরেজ দখল করে।

> মেসেজ এটাচমেন্ট ডিলিট করলেও অনেকখানি স্টোরেজ খালি করতে পারবেন। যারা আইফোনের আইমেসেজ ফিচারটি ব্যবহার করেন, তাদের স্টোরেজ মেসেজের মাধ্যমে আসা মিম, গিফ, সেলফি, শর্ট ভিডিও, ইত্যাদির কারণে পূর্ণ হয়ে যেতে পারে। এসব কনটেন্ট ফোনে সেভ না করলেও স্টোরেজে ঠিকই জমা হয়ে থাকে। তাই মেসেজে আসা এসব এটাচমেন্ট ডিলিট করে কিছু স্পেস খালি করতে পারেন।

> অফলাইন যত কনটেন্ট আছে সব ডিলিট করে ফেলুন। গান, ভিডিও, পডকাস্ট, ইত্যাদি অনলাইনে উপভোগ্য কনটেন্ট ডাউনলোড এখন একটি স্বাভাবিক ব্যাপার। ইউটিউব বা নেটফ্লিক্স থেকে ভিডিও কিংবা স্পটিফাই বা অ্যাপল মিউজিক থেকে গান ডাউনলোড করার ফলে আইফোনের স্টোরেজ বেশ দ্রুত ফুরিয়ে যায়। এসব অ্যাপের অফলাইন কনটেন্ট ডিলিট করেও অনেক স্পেস খালি করা যায়।

> মেসেজ “ফরেভার সেভ” অফ করে রাখুন। ডিফল্ট সেটিংসে আইফোনের আইমেসেজে আসা ও পাঠানো সকল মেসেজ ফোনে সেভ করা থাকে, যা স্টোরেজ দখল করে। যদি অতিরিক্ত মেসেজের জন্য আপনার স্টোরেজ ফুল হয়ে যায়, সেক্ষেত্রে সবসময় মেসেজ সেভ করার সেটিংস বন্ধ করে রাখতে পারেন।

কেএসকে/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]