‘সাড়ে ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সার বৈদেশিক মুদ্রা আয় করছে’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪৩ পিএম, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

দেশের সাড়ে ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সাররা বৈদেশিক মুদ্রা আয় করে নিজেদের সমৃদ্ধ করছেন বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার আইইবি সেন্টারে আয়োজিত ‘ইনোভেটর মেন্টর ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্পের’ সমাপনী অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত হয়ে এ কথা বলেন তিনি। ফেসবুক, গুগল, মাইক্রোসফটসহ গ্লোবাল আইটি জায়ান্টদের অংশগ্রহণে এই ক্যাম্প হয়।

তিনি জানান, ফ্রিল্যান্সাররা নিজেদের স্বাবলম্বী করার পাশাপাশি দেশের অর্থনীতিতেও গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছেন।

পলক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ও আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদের তত্ত্বাবধানে বিগত ১২ বছরে তথ্যপ্রযুক্তি খাত সুদৃঢ় ভিত্তির ওপর দাঁড়িয়েছে। তথ্যপ্রযুক্তি খাত সঠিক অবকাঠামো গড়ে ওঠার কারণে দেশের সাড়ে ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সার অর্থনৈতিকভাবে নিজেদেরকে সমৃদ্ধ করে চলেছে।

ইউনিবেটর প্রোগ্রামের মেন্টর ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্পকে ঐতিহাসিক এক অর্জন হিসেবে বর্ণনা করে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক ফলাফল আমরা মেন্টর ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্প থেকে পেয়েছি। ভবিষ্যতে এমন অনেক মেন্টর ডেভেলপমেন্ট কার্যক্রম হাতে নেয়া হবে। কিন্তু প্রথম ক্যাম্পের এই অনুষ্ঠানটি ইতিহাস হয়ে থাকবে।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ভবিষ্যৎ উদ্যোক্তা সাপ্লাই চেইন এবং স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম তৈরিতে মেন্টর ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্প গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

তিনি বলেন, উদ্যোক্তাদের গাইড লাইন প্রদানের জন্য ২০২৫ সালের মধ্যে সারাদেশে ২০০ জন মেন্টর তৈরি করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে ইনোভেশন ডিজাইন তৈরি করা হয়েছে। যাতে সরকার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শিল্প উদ্যোক্তা সমন্বিতভাবে কাজ করার মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার কাজ আরও ত্বরান্বিত হবে।

বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, চুয়েট, ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) ঢাকা কেন্দ্রের যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর।

তিনি বলেন, যেকোনো দেশের সফলতার মূল বিষয় হলো নেতৃত্ব। বাংলাদেশের তা আছে। এখন চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যুগ। সবকিছু এখন প্রযুক্তিনির্ভর। তাই আমাদেরও প্রযুক্তিনির্ভর হতে হবে। সময়ের সঙ্গে তথ্যপ্রযুক্তিকে ব্যবহার না করতে পারলে টিকে থাকা যাবে না।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- হাই-টেক পার্ক অথোরিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, আইইবি সম্মানী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো. শাহাদাৎ হোসেন শীবলু, ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. নূরুজ্জামান, প্রকৌশলী খন্দকার মঞ্জুর মোর্শেদ, মঞ্জুরুল হক মঞ্জু, সম্মানী সহকারী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী রনক আহসান, আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোল্লা মোহাম্মদ আবুল হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান প্রকৌশলী হাবিব আহমেদ হালিম মুরাদ, সম্মানী সম্পাদক প্রকৌশলী কাজী খায়রুল বাশার, ইভ্যালির নির্বাহী পরিচালক মুরাদ হাসান খুরশেদ সহ ইউনিবেটরের আয়োজকবৃন্দ। সমাপনীর দিন পৃথক সেশন পরিচালনা করেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদ।

এর আগে গত ১১ ফেব্রুয়ারি অতিথি সেশনে গুগল থেকে যুক্ত হয়েছিলেন নেক্সট বিলিয়ন ইউজারের (এনবিইউ) হেড অব অপারেশন বিকি রাসেল।

শনিবার মেন্টর ডেভলোপমেন্ট ক্যাম্পে অতিথি সেশনে ছিলেন ফেসবুকের এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের ইমার্জিং মার্কেট ডিরেক্টর জর্ডি ফরনিস এবং বাংলাদেশে ফেসবুকের হেড অব পাবলিক পলিসি শাবহানাজ রাশিদ দিয়া।

একই দিন পৃথক সেশনে মাইক্রোসফটের পক্ষ থেকে মেন্টর ডেভলোপমেন্ট ক্যাম্পে অতিথি সেশনে অংশ নেন মাইক্রোসফট বাংলাদেশের হেড অব চ্যানেল সেলার মাশরুর হোসেন।

এইচএস/জেডএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]