নতুন ফ্ল্যাগশিপ ‘হেলিও৩০’

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৩৭ পিএম, ২৯ জুন ২০২২

এডিসন গ্রুপ প্রথমবারের মতো ৬ জিবি র‌্যামের ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন বাজারে আনলো। ‘হেলিও৩০’ মডেলের এই ফোনটি তৈরি হয়েছে সিম্ফনি মোবাইলের এডিসন ইন্ডাস্ট্রিজ কারখানায়।

এডিসন গ্রুপের হেড অফিসে গ্রুপটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর, জাকারিয়া শাহিদের উপস্থিতিতে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর, চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী, জনপ্রিয় চিত্রনায়ক রিয়াজ, হেড অব সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং, মোহাম্মাদ আবু সায়েম এবং হেড অফ প্রডাক্ট ম্যানেজম্যান্ট, মুনিম এমডি ইশতিয়াক এই ফোনটি উদ্বোধন করেন।

লেদার ব্যাক পার্ট ডিজাইনের ‘হেলিও৩০’ ফ্ল্যাগশিপ ফোনে ব্যবহৃত হয়েছে ৬.৬৭ ইঞ্চির ইন-সেল আইপিএস প্রযুক্তির পাঞ্চহোল ডিসপ্লে। যার রেজল্যুশন ১০৮০X২৪০০ পিক্সেল বা ফুল এইচডি প্লাস। অ্যান্ড্রয়েড ১১ অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত এই ফোনের উচ্চগতি নিশ্চিত করতে আছে মিডিয়াটেকের প্রিমিয়াম ক্যাটাগরির হ্যালিও পি৭০ ১২ এনএম চিপসেট এবং ২.১ গিগাহার্টজ অক্টাকোর প্রসেসর।

জিপিউ হিসেবে রয়েছে ৯০০ মেগাহার্জ স্পিড। এর সঙ্গে ৬ জিবি র‌্যাম থাকায় পাওয়া যাবে দারুণ পারফরমেন্স। এর ইন্টারনাল স্টোরেজ ১২৮ জিবি, যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

নতুন এই ফোনে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ১.৭৯ অ্যাপারচার সমৃদ্ধ ১০৮ মেগাপিক্সেল ইউএইচডি কোয়াড ক্যামেরা, যার একটিতে আছে ১১৫ ডিগ্রি ওয়াইড অ্যাংগেল লেন্স, অন্যটিতে ম্যাক্রো শট ক্যাপচারিং এবং আরেকটিতে আছে ডেপথ সেন্সর লেন্স। সেলফির জন্য এই ফোনের সামনে রয়েছে ডিসপ্লে ফ্ল্যাশযুক্ত এফ ২.০ অ্যাপারচার ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

পাওয়ার ব্যাকআপ দিতে এতে আছে ৫ হাজার মিলি অ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। দুটি ন্যানো সিম ব্যবহারের আছে এই স্মার্টফোনটিতে। মেমোরি কার্ডের জন্য রয়েছে আলাদা স্লট। এর ফেস আনলক ফিচার ০.৩ সেকেন্ডে ব্যবহারকারীর মুখাবয়ব রিড করতে পারবে। রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট, প্যাটার্ন লক ও পাসওয়ার্ড।

জি সেন্সর, প্রক্সিমিটি সেন্সর, লাইট সেন্সর, জাইরোস্কোপ সেন্সর এবং ম্যাগনেটিক সেন্সর রয়েছে নতুন এই স্মার্টফোনটিতে। স্মার্টফোনটির দাম রাখা হয়েছে ১৪ হাজার ৯৯০ টাকা (ভ্যাট ছাড়া)। ফ্লেম অরেঞ্জ এবং মিন্ট গ্রিন কালারে আজ থেকে সিম্ফনির সকল আউটলেটে এই স্মার্টফোনটি পাওয়া যাবে আকর্ষণীয় বান্ডেল অফারসহ।

এমআরএম/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]