সোনাতলায় বোরো ধান নিয়ে হতাশ কৃষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৪:৩৪ পিএম, ২২ এপ্রিল ২০১৯

বগুড়ার সোনাতলা উপজেলায় চলতি বছর ১০ হাজার ১০০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষ করা হয়েছে। তবে বোরো ধান ক্ষেতে নেক ব্লাস্ট রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। এতে কৃষকরা চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। এ রোগের কারণে বাড়ন্ত ধানের শীষ চিটায় পরিণত হচ্ছে।

উপজেলার কয়েকটি গ্রাম ঘুরে দেখা গেছে, নেক ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হয়ে ধানের পাতা পুড়ে গেছে। ফলে ধানের শীষ চিটায় পরিণত হয়েছে। এছাড়াও ধানের শীষ সাদা হয়ে গেছে। বেশির ভাগ জায়গায় ইরি-বোরো ধান এ রোগে আক্রান্ত হওয়ায় কৃষকরা হতাশ হয়ে পড়েছেন।

> আরও পড়ুন- মেহেরপুরে ব্লাস্ট প্রতিরোধী গম ক্ষেত পরিদর্শন

এ বিষয়ে নওদাবগা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক, মুকুল মিয়া, সুজন মাহমুদ মাস্টার জানান, তাদের ব্রি ধান-২৮ নেক ব্লাস্ট রোগে আক্রান্ত হওয়ায় ধানের শীষ চিটায় পরিণত হয়েছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাসুদ আহমেদ জানান, যেসব এলাকার কৃষক ব্রি-ধান ২৮ রোপণ করেছেন; সেসব এলাকায় নেক ব্লাস্ট রোগ দেখা দিয়েছে। এ জাতের ধান রোপণ করতে নিষেধ করা হয়েছে। এরপরও যেসব কৃষক ব্রি-ধান ২৮ জাতের রোপণ করেছে, তাদের জমিতে এ রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা যাচ্ছে।

> আরও পড়ুন- কৃষকের চোখে বোরোর বাম্পার ফলনের স্বপ্ন

তিনি জানান, যেসব জমিতে পানি জমাট থাকে না (বালি মাটি), সেসব জমিতে এ রোগ বেশি আক্রমণ করে। এজন্য মাঠপর্যায়ে লিফলেট বিতরণ ও উঠান বৈঠক করে কৃষকদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া আক্রান্ত জমিতে রোগনাশক ওষুধ নাটিভো, দুপার, ক্লিয়া, এমাস্ট্রাটক দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

লিমন বাসার/এসইউ/এমএস