এস কে সিনহাকে ‘নিকৃষ্ট জানোয়ার’ বললেন উপাচার্য

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৪:১২ পিএম, ১৫ আগস্ট ২০১৮

সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহাকে ‘নিকৃষ্ট জানোয়ার’ বলে সম্বোধন করেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।

বুধবার সকালে বঙ্গবন্ধুর ৪৩তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এই মন্তব্য করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সভাকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে সকালে ফুল দিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপাচার্য।

সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্রের সঙ্গে সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা সরাসরি জড়িত উল্লেখ করে ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘তাদের পরিকল্পনা মতো আজ ১৫ আগস্ট নতুন সরকার গঠনের কথা ছিল। যুদ্ধাপরাধী হিসেবে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত মীর কাসেম আলীর ভাই মামুনের সঙ্গে বিদেশের মাটিতে মিটিংও করে কুলাঙ্গার, কুখ্যাত ও নিকৃষ্ট জানোয়ার তথাকথিত প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা। সে পুরো বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রধান চক্রান্তকারী । আর এসবের জন্যে সে মামুনের কাছ থেকে টাকা পাচ্ছে।’

এস কে সিনহার প্রতি ক্ষোভের কারণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমার ক্ষোভ অন্য জায়গায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে না জানিয়ে ১৭ জন শিক্ষার্থীকে অবৈধভাবে ভর্তি করে ১০টি মেডিকেল কলেজ। আদালত সেই কলেজগুলোকে ১০ কোটি টাকা জরিমানা করে। একইভাবে ৫টি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ থেকে আমাদের ৫ কোটি টাকা পাবার কথা থাকলেও আমরা পাইনি। তবে এই টাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পেয়েছে। কিন্তু এস কে সিনহা চবির ৩ কোটি টাকা কনকর্ডকে দিয়ে দেয়। যারা তাকে বাড়ি করে দিচ্ছে। তাদের নাকি ক্যান্সার হাসপাতাল আছে। তার এসব দুর্নীতি ও জালিয়াতির প্রমাণ দুদক পেয়েছে। যদিও আদালতের মাধ্যমে পরে আমরা ২ কোটি টাকা পাই। সেই টাকা দিয়ে বর্তমানে মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্যসহ নানা উন্নয়নমূলক কাজ করা হচ্ছে। ’

ডেপুটি রেজিস্ট্রার (তথ্য ও ফটোগ্রাফি) ফরহাদ হোসেন খাঁনের সঞ্চালনায় শোক দিবসের আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে দেন রাখেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার। এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কে.এম নূর আহমেদ, সিনেট সদস্য অধ্যাপক ড. সুলতান আহমেদ, সিন্ডিকেট সদস্য ও সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. ফরিদ উদ্দিন আহামেদ, কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক সেকান্দার চৌধুরী, আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক এবিএম আবু নোমান, প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. সালাউদ্দিন আহামেদ, সাধারণ সম্পাদক অলোক পাল প্রমুখ।

এর আগে মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু পরিষদ আয়োজিত এক শোক সভাতেও চবি উপচার্য এস কে সিনহাকে নিয়ে বিষোদগার করেন। সেখানে উপাচার্য বলেন, ‘এস কে সিনহাকে যদি কোথাও পাই, আমি দুটো থাপ্পড় দিয়ে ছাড়ব। আমি দেবই। কেউ আমাকে আটকে রাখতে পারবে না। শয়তানকে যেভাবে পাথর মারে, সেভাবে পাথর মারব। জীবন দিয়ে হলেও সেটা করব।’

আবদুল্লাহ রাকীব/আরএআর/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :