কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতাকে মারধর

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০১৯

কোটা সংস্কার আন্দোলনের সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখার যুগ্ম-আহ্বায়ক মাজহারুল ইসলামকে মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার বিকেল ৫টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে কয়েকজন যুবক তাকে মারধর করে। মারধরের শিকার মাজহারুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে মারধরকারীর কাউকে চিনতে পারেননি বলে জানিয়েছেন মাজহারুল।

মারধরের বিষয়ে জানতে চাইলে মাজহারুল বলেন, টিউশনের লিফলেট বিতরণ করার জন্য আমরা কয়েকজন শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে বসে আলোচনা করছিলাম। এ সময় কয়েকজন যুবক এসে আমাকে ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। আমরা এখানে বসে কী করছি সেটা তারা জানতে চায়। জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে তারা আমাকে কিল-ঘুষি ও লাথি মারতে থাকে। পরে তারা আমাদের ওখানে রেখে চলে যায়। সেখান থেকে আমার বন্ধুরা আমাকে রিকশায় করে হাসপাতালে নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের রাবি শাখার আহ্বায়ক মাসুদ মোন্নাফ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও এর আশেপাশের এলাকায় টিউশনের লিফলেট বিতরণ করার জন্য মাজহারুলসহ কয়েকজন শিক্ষার্থী শহীদ মিনারে বসে আলোচনা করছিল। এ সময় ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী সেখানে গিয়ে মাজহারুলকে মারধর করেছে। তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, মাজহারুল নামের ওই ছেলেকে মারধর করা হয়েছে কিনা আমি জানি না। তবে বিকেলে কয়েকজন শিক্ষার্থী আমাকে খবর দেয় যে, শহীদ মিনারে টিউশন লিফলেট বিতরণের আলোচনার নামে ছাত্রদল ও শিবিরের ছেলেপেলে মিটিং করছে। খবর পেয়ে আমি ওখানে যাই। গিয়ে আমি কোনো মারধরের ঘটনার কথা শুনিনি, দেখিওনি।

এএম/এমকেএইচ

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :