‘অপরাধীরা’ও ছাত্রলীগের বিভিন্ন পদে

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৪:২৩ এএম, ১৪ মে ২০১৯

ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যবিশিষ্ট কেন্দ্রীয় কমিটিতে পদ পেয়েছেন অপরাধীরাও। সম্মেলনের দীর্ঘ এক বছর পর ঘোষিত হওয়া পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ত্যাগীদের মূল্যায়ন করা হয়নি বলে বিক্ষোভ করেছে পদবঞ্চিতরা। এতে হামলাও চালিয়েছে কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর অনুসারীরা।

জানা গেছে, ত্যাগীদের বাদ দেয়া হলেও ঘোষিত কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ পদ পেয়েছেন অনেক অছাত্র, মাদক ব্যবসায়ী, হত্যা মামলার আসামি, বিবাহিত ও চাকরিজীবীরা। বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভে ফুঁসছেন পদবঞ্চিতরা।

সহ-সভাপতির পদ পাওয়াদের মধ্যে আতিকুর রহমান খানের মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও গত ১৩ এপ্রিল রাতে মল চত্বরে পহেলা বৈশাখের কনসার্টে আগুন দেয়ার ঘটনায়ও জড়িত তিনি। গণরুমে পিস্তল দিয়ে শিক্ষার্থীদের ভয় দেখানো ও শিক্ষককের গায়ে হাত তোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার হয়েছিলেন বরকত হাওলাদার। মাদক সংশ্লিষ্টতা ও নিজ কক্ষে দেশীয় অস্ত্র রাখার দায়ে হল থেকে ছাড়া হয়েছিলেন আরেফিন সিদ্দিকী সুজন। আমিনুল ইসলাম বুলবুল গোপালগঞ্জের একটি হত্যা মামলার এক নম্বর আসামি।

তানজিল ভূঁইয়া তানভীর ঠিকদারি ব্যবসায় জড়িত। নির্ধারিত বয়সও পার করেছেন বলে অভিযোগ তার বিরুদ্ধে। পারিবারিকভাবে জামায়াত-শিবিরের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে মাহমুদুল হাসানের বিরুদ্ধে। রুহুল আমীনের বিরুদ্ধে পূর্বে ছাত্রদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। শাহরিয়ার কবির বিদ্যুৎ মাদক ব্যবসায় জড়িত। এসএম তৌফিকুল হাসান সাগরের বাবা মহান মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী ও বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত ছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও সহ-সভাপতি সোহেল রানা, আবু সালমান প্রধান শাওনের নির্ধারিত বয়সসীমার বেশি বয়স। দফতর সম্পাদক আহসান হাবীব সাবেক চাকরিজীবী এবং তার বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের মল চত্বরে বৈশাখী কনসার্টে আগুন দেয়ার অভিযোগ আছে।

সহ-সভাপতি সুরঞ্জন ঘোষের বয়স ত্রিশের ঊর্ধ্বে। সংগঠনটির ২নং যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ চৌধুরী ২০১৪-১৫ সেশনে পরীক্ষায় নকলের দায়ে ঢাবি থেকে তিন বছরের জন্য বহিষ্কার হয়েছিলেন। এছাড়া তার বিরুদ্ধে রয়েছে পহেলা বৈশাখী কনসার্টে আগুন দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে। আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক রাকিনুল হক চৌধুরী ছোটন বর্তমান কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরীর আপন ছোট ভাই। তিনি ছাত্রলীগে নিষ্ক্রিয়। সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগের নাম বিক্রি করে এলিফ্যান্ট রোডের একটি পাঞ্জাবি দোকান থেকে পাঞ্জাবি নেয়ার দায়ে আটক হয়েছিলেন উপগ্রন্থনা ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক পদ পাওয়া সৌরভ নাথ। এ কারণে তাকে জেলেও যেতে হয়েছিল।

এমএইচ/বিএ

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :