অতিরিক্ত টাকা আদায়, শিওর ক্যাশ এজেন্টদের পুলিশে দিল ছাত্রলীগ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৪:৪৫ পিএম, ২৭ জুন ২০১৯

পুরান ঢাকার কবি নজরুল সরকারি কলেজের একাদশে ভর্তিতে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ায় শিওর ক্যাশের বেশ কয়েকজন এজেন্টকে পুলিশে সোপর্দ করেছেন কলেজের ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) দুপুরে কবি নজরুল কলেজে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির নিয়ম অনুযায়ী ৩ হাজার ৩১২ টাকা (সর্বোচ্চ কমিশন ৩০ টাকা) শিওর ক্যাশে জমাদানের মাধ্যমে পরিশোধ করতে হয়। তবে কবি নজরুল সরকারি কলেজ সংলগ্ন বাহাদুর শাহ পার্কের উত্তর দিকের শিওর ক্যাশের এজেন্ট দোকানিরা প্রতি শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ৩শ’ থেকে ৪শ’ টাকা করে বেশি নেন।

kobi-nazrul

ভর্তিচ্ছুদের ভিড় থাকায় শিওর ক্যাশের এজেন্টরা বেশি টাকা দিতে বাধ্য করেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা কোনো উপায় না পেয়ে বেশি টাকা দিয়েই ভর্তির কার্যক্রম করছিলেন। পরে সাধারণ শিক্ষার্থী ও বেশ কয়েকজন অভিভাবক দুপুর ১২টার দিকে কবি নজরুল কলেজ ছাত্রলীগের উপ-সম্পাদক শরীফুল আজম হৃদয়কে বিষয়টি জানান।

kobi-nazrul

অভিযোগ পেয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে ঘটনাস্থলে যান হৃদয়। সেখানে গিয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের অভিযোগের সত্যতা পান তিনি। বিষয়টি নিয়ে শিওর ক্যাশ এজেন্টের সাথে কথা কাটাকাটি হয় শিক্ষার্থীদের। পরে সূত্রাপুর থানার ওসিকে বিষয়টি জানানো হয়। পুলিশ এসে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সাথে কথা বলে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার সত্যতার প্রমাণ পায়। পরে অভিযুক্ত শিওর ক্যাশের এজেন্টদের থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

kobi-nazrul

এ বিষয়ে কবি নজরুল কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হাওলাদার বলেন, আমাদের কলেজে ভর্তির সব কার্যক্রম অনলাইনের মাধ্যমে সম্পন্ন করার নিয়ম রয়েছে। তবে কিছু অসাধু শিওর ক্যাশের এজেন্ট শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ভর্তি বাবদ অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছিল। বিষয়টি কলেজ ছাত্রলীগের উপ-সম্পাদক শরীফুল আজম হৃদয় জানার পর সেখানে গিয়ে পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ এসে তাদের থানায় নিয়ে যায়।

kobi-nazrul

সূত্রাপুর থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ বলেন, শিওর ক্যাশের মাধ্যমে ভর্তির টাকা বেশি নেওয়ার কথা কলেজ ছাত্রলীগের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি, পরে সেখানে গিয়ে আমরা চারজনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি। থানায় আনার পর তারা অতিরিক্ত টাকা ফেরত দিয়েছে এবং পরবর্তীতে এ রকম কাজ আর না করার অঙ্গীকার দিলে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

ইমরান খান/আরএস/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :