ছাত্রলীগ নেতার পরিবারকে ইবি কর্মচারীর হুমকি, বিক্ষোভ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া
প্রকাশিত: ০৩:৩৯ পিএম, ০২ নভেম্বর ২০১৯

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান লালনের বাড়িতে গিয়ে পরিবারকে হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মচারীর বিরুদ্ধে।

হুমকিদাতা ওই কর্মচারীর নাম ইলিয়াস জোয়ার্দার। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের কর্মচারী ও ক্যাম্পাস পার্শ্ববর্তী শেখপাড়ার বাসিন্দা।

গতকাল শুক্রবার ইলিয়াসের নেতৃত্বে ৭-৮ জন লালনের গ্রামের বাড়িতে গিয়ে পরিবারকে হুমকি দিয়েছে বলে জানা গেছে। হুমকি দিয়ে ফেরার পথে ওই কর্মচারীসহ চারজনকে আটক করেছে কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার আমলা বাজার ফাঁড়ির পুলিশ। লালনের পরিবারকে হুমকির খবর ক্যাম্পাসে পৌঁছালে রাত ৯টার দিকে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে শাখা ছাত্রলীগের একটি পক্ষ।

জানা যায়, ওই দিন বিকেল থেকেই ইলিয়াস তার সহযোগীদের নিয়ে লালনের গ্রামে মাইক্রোবাসসহ ঘোরাফেরা করতে থাকেন। পরে সন্ধ্যায় লালনের গ্রামের বাড়িতে যান। সেখানে লালনকে না পেয়ে তার পরিবারকে লালনের ব্যাপারে হুমকি দেন। লালনের দাবি হুমকিদাতারা বলেন, লালনের সাহস অনেক বেড়ে গেছে সে ক্যাম্পাসে ভিসির বিরুদ্ধে আন্দোলন করে। তাকে এরপর থেকে সব ধরনের কর্মকাণ্ডের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে বলবেন অন্যথায় তার সমস্যা হবে। এসময় তারা লালনের প্রাণনাশের হুমকিও দেয় বলে দাবি করেন লালন।

লালনের বাড়িতে হুমকি দেয়ার খবর এলাকাবাসীর মাঝে ছড়িয়ে পড়লে তারা মোটরসাইকেল নিয়ে তাদেরকে ধাওয়া দেয়। পরে পুলিশকে জানালে মিরপুর থানার অধীন আমলা বাজার ফাঁড়ি পুলিশ গিয়ে চারজনকে আটক করে। আটকরা হলেন, শেখপাড়ার বাসিন্দা উজ্জ্বল জোয়ার্দার, গাংনীর বেদবাড়ীয়া গ্রামের বাসিন্দা সবুজ ও হারুন। তারা ওই পুলিশ ফাঁড়িতে আটক রয়েছেন বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে, লালনের পরিবারকে হুমকি দেয়ার খবরে ক্যাম্পাসে তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ মিছিল করে শাখা ছাত্রলীগের একটি পক্ষ। রাত ৯টার দিকে বিভিন্ন আবাসিক হল থেকে জিয়া হল মোড়ে সংগঠিত হয়ে মিছিল বের করে তারা। মিছিলটি বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রধান ফটকে মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব ম্যুরালের সামনে গিয়ে সমাবেশে মিলিত হয়।

IUB

সমাবেশে নেতাকর্মীরা লালনের পরিবারকে হুমকি দেয়ার ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। সেই সঙ্গে এ ঘটনার সাথে জড়িত কর্মচারীসহ সকলের শাস্তি দাবি করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রক্টর ড. মাহবুবর রহমানের নির্দেশে এ হুমকি দেয়া হয়েছে বলে সমাবেশে বক্তারা দাবি করেন। এসময় ড. মাহবুবের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেয় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান বলেন, বরাবরের মতো এটিও একটি অবান্তর অভিযোগ। আমি লালনের বিরুদ্ধে মামলা করার পরে বিভিন্নভাবে তা প্রত্যাহারের জন্য তারা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এটি তারই একটি উপশম।

ইবি ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান লালন বলেন, বিভিন্ন সময় ক্যাম্পাসে দুর্নীতি বিরোধী আন্দোলন করায় আমার বাড়িতে সাবেক প্রক্টর ড. মাহবুবর রহমান লোক পাঠিয়ে হুমকি দিয়েছে। আমি আমার ও পরিবারের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত। আটকদের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া ডিবির ওসি বলেন, থানা থেকে ইবির কর্মচারীসহ আটকদের ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। এখনও কোনো মামলা হয়নি। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

ফেরদাউসুর রহমান সোহাগ/এমএএস/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com