বছর না যেতেই আবারও শূন্য গাইবান্ধা-১ আসন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি গাইবান্ধা
প্রকাশিত: ০৭:৪৯ এএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০৭:৫২ এএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭

শপথ গ্রহণের মাত্র ২৫৩ দিনের মাথায় মারা গেলেন গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মোস্তফা আহমেদ। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

গত ১৮ নভেম্বর বিকেলে ঢাকা যাওয়ার পথে টাঙ্গাইলে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার পর থেকে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন।

সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণের মাত্র ২৫৩ দিনেই গোলাম মোস্তফা আহমেদ সুন্দরগঞ্জের মানুষের কাছে খুব প্রিয় হয়ে উঠেছিলেন। তার মৃত্যুর সংবাদে পুরো সুন্দরগঞ্জ উপজেলা জুড়ে এখন শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বছর না যেতেই আবারও গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনটি শূন্য হলো। চলতি বছরের ১০ এপ্রিল জাতীয় সংসদ ভবনে গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন গোলাম মোস্তফা আহমেদ।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় এই আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মনজুরুল ইসলাম লিটন সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হওয়ার পর আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। পরে চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি গোলাম মোস্তফা আহমেদকে মনোনয়ন দেয় আওয়ামী লীগ। এরপর ২২ মার্চ অনুষ্ঠিত উপ-নির্বাচনে তিনি বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন।

Gaibandha-Mp-01

গোলাম মোস্তফা আহমেদ ৩১ বছর ধরে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া ২০১১ ও ২০১৬ সালে চন্ডিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হন।

এর আগে ১৯৯১ সালে এই আসন থেকে জাপা সমর্থিত হাফিজার রহমান প্রামাণিক ও ১৯৯৬ সালে ওয়াহেদুজ্জামান সরকার বাদশা, ২০০১ সালে জামায়াতের মুহম্মদ আব্দুল আজিজ ওরফে ঘোড়ামারা আজিজ, ২০০৮ সালে জাপা সমর্থিত আবদুল কাদের খান ও ২০১৪ সালে মনজুরুল ইসলাম লিটন সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

গাইবান্ধা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক জাগো নিউজকে বলেন, গোলাম মোস্তফা আহমেদের মৃত্যুতে আমরা শোকাহত। তিনি ছিলেন আদর্শবান রাজনীতিবিদ। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত একজন কর্মীকে আমরা হারালাম। তিনি সুন্দরগঞ্জের মাটি ও মানুষের নেতা ছিলেন। সব সময় মানুষের জন্য কাজ করেছেন।

তিনি আরও জানান, দুপুর জাতীয় সংসদ ভবনে জানাজা শেষে এমপি গোলাম মোস্তফা আহমেদের মরদেহ গাইবান্ধায় নেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এস এম গোলাম কিবরিয়া জাগো নিউজকে বলেন, দুপুর ২টা থেকে আড়াইটার মধ্যে তাকে হেলিকপ্টারযোগে সুন্দরগঞ্জের চন্ডিপুর ডাকবাংলো সংলগ্ন ফুটবল মাঠে নেয়া হবে। পরে বাদ মাগরিব জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

রওশন আলম পাপুল/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :