নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় নিয়াজুলের পর আলোচনায় শাহ নিজাম

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৭:৩৯ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৭:৪৩ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৮

নারায়ণগঞ্জে হকার ইস্যু নিয়ে প্রকাশ্যে গুলি করার ঘটনায় সন্ত্রাসী নিয়াজুলের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে এবার নাম এসেছে নারায়ণগঞ্জের আরেক প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতা শাহ নিজামের।

নিয়াজুল গুলি করার চেষ্টা করলেও শাহ নিজাম প্রকাশ্যে অস্ত্র উঁচিয়ে গুলি করেছে এমন ছবি এখন গণমাধ্যমকর্মীদের হাতে হাতে। ছবিতে এও দেখা গেছে শাহ নিজাম বিশাল বাহিনী নিয়ে প্রতিপক্ষদের ঘায়েল করতে গুলি করেছে। তবে শাহ নিজামের অস্ত্রটি লাইসেন্স করা এমনটা তার লোকজন দাবি করলেও ঘটনার ৪ দিনেও থানায় কোনো জিডি করা হয়নি।

এদিকে মেয়র আইভীসহ তার লোকদের লক্ষ্য করে শাহ নিজাম প্রকাশ্যে গুলি করেছে এমন ছবি গণমাধ্যমকর্মীদের হাতে ছড়িয়ে পড়েছে।

শাহ নিজাম কে? শাহনিজাম হলো নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমানের আস্থাভাজন ব্যক্তি ও মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। নারায়ণগঞ্জে তার একটি বিশাল প্রভাব রয়েছে। যার কারণে অস্ত্রধারী শাহ নিজামকে নিয়ে এতোটা আলোচনায় হয়নি।

মেয়র আইভী ও শামীম সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের দিন বৈধ অবৈধ অস্ত্র ব্যবহারকারীদের খবর মিডিয়ায় গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ পায়। বিশেষ করে চার খলিফার এক খলিফা নিয়াজুল খান প্রকাশ্যে অস্ত্র উঁচিয়ে গুলি করার চেষ্টায় গণধোলাইয়ের শিকার হয়। আর নিয়াজুলকে নিয়ে সারা দেশে ব্যাপক আলোচনা সৃষ্টি হয়। সেই আলোচনার পর অস্ত্রধারীদের খুঁজে বের করে গ্রেফতার করা হবে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী এমন ঘোষণাও দেয়।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী নিয়াজুল, বিএনপির ক্যাডার সুমনসহ অন্যদের নাম প্রকাশ করে। কিন্তু প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতা শাহ নিজামের নাম প্রকাশ করেনি।

এদিকে সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় শনিবার প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম তার বক্তব্যে বলেছেন, শাহ নিজাম মিছিলের ওপর গুলিবর্ষণ করেছে। অস্ত্র প্রদর্শনকারী এসব সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করা হোক। নারায়ণগঞ্জের সব মানুষ জানে এ সন্ত্রাসীই এখন নারায়ণগঞ্জের অধিকাংশ সন্ত্রাসীকে নিয়ন্ত্রণ করে। তার নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে নারায়ণগঞ্জের আন্ডারওয়ার্ল্ড। আর তাকে শেল্টার দিচ্ছেন এ শহরের এক গডফাদার। তাই এখনই যদি এ সন্ত্রাসী এবং তার বাহিনীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া না হয় তাহলে এ শহরে আরও যে অঘটন ঘটবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুর রাজ্জাক জানান, শাহ নিজাম থানায় কোনো জিডি করেনি।

নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, যারাই অস্ত্র প্রদর্শন করেছে সেগুলো ভিডিও ফুটেজ দেখে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শাহাদাত হোসেন/এমএএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :