ফাঁসির রায় শুনে আদালত থেকে পালালো স্বামী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ০৩:৩৮ পিএম, ০৫ এপ্রিল ২০১৮

সাতক্ষীরায় নয় বছর আগে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ডের রায়ের পর আদালত থেকে পালিয়ে গেছে দণ্ডপ্রাপ্ত স্বামী।

বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিচারক হোসনে আরা আক্তার এ রায় ঘোষণা করেন। সর্বোচ্চ সাজার আদেশ পাওয়া কামরুল সানার বাড়ি শ্যামনগর উপজেলার মিরগাং গ্রামে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী জহুরুল হায়দার জানান, কামরুল এ মামলায় জামিনে ছিল। সকালে হাজিরা দিতে আদালতে উপস্থিত হয় কামরুল। কিন্তু রায় ঘোষণার পরপরই পালিয়ে যায় কামরুল।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৯ সালের ২৪ জুলাই যৌতুকের দাবিতে কামরুল তার স্ত্রী সালমা বেগমকে পিটিয়ে আহত করে। একপর্যায়ে সালমার মৃত্যু হলে কামরুল তার মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা চালায়।

এ ঘটনায় সালমার ভাই রাশিদুল ইসলাম বাদী হয়ে কামরুলের বিরুদ্ধে শ্যামনগর থানায় মামলা করেন। তদন্ত শেষে কামরুলসহ চারজনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।

কামরুলের ফাঁসির রায় দিলেও হত্যাকাণ্ডে সম্পৃক্ততা প্রমাণিত না হওয়ায় কামরুলের ছোট ভাই মাহমুদ ঢালী, বোন মোলিদা খাতুন ও বোনের জামাই নজির গাজীকে খালাস দেন বিচারক।

এএম/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :