৯৯৯ নম্বরে ফোন করে বোনের ধর্ষককে ধরিয়ে দিলো ভাই

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি মৌলভীবাজার
প্রকাশিত: ০৭:৪১ পিএম, ১৭ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ০৭:৪৩ পিএম, ১৭ এপ্রিল ২০১৮

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় কবিরাজির নামে এক নারীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে কবিরাজ মানিক মিয়াকে (২৮) আটক করেছে পুলিশ।

আটক মানিক মিয়া উপজেলার রাউতগাঁও ইউনিয়নের পূর্ব ফটিককুলী গ্রামের বাসিন্দা। তিনি কবিরাজির নাম করে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

জানা যায়, গত রোববার মহিষমারা গ্রামের এক নারীর মোবাইল চুরি হয়। প্রতিবেশীর মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন মানিক মিয়া নামে এক কবিরাজ তাবিজ-কবজের মাধ্যমে ফোন উদ্ধার করতে পারেন। পরদিন সোমবার রাত প্রায় ১১টার দিকে কবিরাজ মানিক মিয়াকে তার বাড়িতে নিয়ে আসেন ওই নারী।

সেখানে যাওয়ার পর মানিক মিয়া প্রথমে একটি তাবিজ লিখে সেটা পোড়াতে বলে এবং ওই নারীকে হাড়ির মধ্যে কচুপাতায় মোড়ানো তাবিজ নিয়ে রাত ৩টার দিকে এলাকার তিন রাস্তার মোড়ে আসতে বলেন। এ সময় ওই নারী ও তার ছোটবোন ছাড়া কেউ সেখানে আসতে পারবে না বলে জানিয়ে দেন তিনি।

তার কথা মতো সঠিক সময়ে তিন রাস্তার মোড়ে যায় ওই নারী। এসময় তার ছোট বোনকে রেখে তাকে আড়ালে আসতে বলেন মানিক। আড়ালে না যেতে চাওয়ায় বিভিন্ন ভয়ভীতিও দেখায় মানিক। পরে রাজি হলে তাকে ঝোপঝাড়ে নিয়ে ধর্ষণ করে। বিষয়টি টের পেয়ে ওই নারীর ছোট বোন বাসায় খবর দেয়। এরপরই তার ভাই পুলিশের ৯৯৯ সার্ভিস নম্বরে কল দিলে কুলাউড়া থানা পুলিশ মানিককে মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার মহিষমারা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে ।

কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু ইউসুফ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে।

রিপন দে/এমএএস/এমএস