জয়ের পর আ.লীগ এমপির বাসভবনে বিএনপির ৩ কাউন্সিলর!

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক খুলনা
প্রকাশিত: ০৭:৩৫ পিএম, ১৭ মে ২০১৮

খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনে বিএনপির নবনির্বাচিত ৩ কাউন্সিলরসহ ছয়জন কাউন্সিলর আওয়ামী লীগ নেতা ও বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন।

গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় ওই ৬ কাউন্সিলর এমপির খুলনার বাসভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এ সময় তারা ফুলের তোড়া দিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা শেখ হেলালউদ্দীন এমপির সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। রাতে এ ঘটনা জানাজানি হলে স্থানীয় রাজনীতিতে তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়।

বিএনপির কাউন্সিলরের মধ্যে রয়েছেন- কেসিসির ৬ নম্বর ওয়ার্ডের শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ প্রিন্স, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সুলতান মাহমুদ পিন্টু ও ২০ নম্বর ওয়ার্ডের শেখ গাউসুল আজম।

এছাড়া অন্য তিন কাউন্সিলর হলেন- ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের আনিছুর রহমান বিশ্বাস, ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের শেখ হাফিজুর রহমান হাফিজ, ও ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. গোলাম মওলা শানু।

এদের মধ্যে শেখ হাফিজুর রহমান হাফিজকে সম্প্রতি বিএনপি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। পাশাপাশি আনিছুর রহমান বিশ্বাস ও মো. গোলাম মওলা শানু স্বতন্ত্রপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেন।

আনিছুর রহমান বিশ্বাস সদ্য সমাপ্ত কেসিসি নির্বাচনে বিএনপির কাছে মনোনয়ন না চেয়ে স্বতন্ত্রপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। সেই সঙ্গে গোলাম মওলা শানু এক সময় ইসলামী ছাত্র শিবিরের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

৬ কাউন্সিলর শেখ হেলালউদ্দীন এমপির সঙ্গে সাক্ষাৎকালে নবনির্বাচিত সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, খুলনা-২ আসনের সংসদ মিজানুর রহমান মিজান, বিসিবির পরিচালক শেখ সোহেল, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা এস এম কামাল হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা শেখ সৈয়দ আলী ও অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা এসএম কামাল হোসেন বলেন, বিএনপির তিন কাউন্সিলরসহ ৬ কাউন্সিলর শেখ হেলালউদ্দীন এমপির সঙ্গে মূলত শুভেচ্ছা বিনিময় করতে এসেছিলেন। তবে পরবর্তীতে তারা আওয়ামী লীগের মতাদর্শে বিশ্বাসী হয়ে দলে যোগদান করতে পারেন।

এ ব্যাপারে খুলনা মহানগর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের তিনজন কাউন্সিলর কেন আওয়ামী লীগের একজন প্রভাবশালী সংসদ সদস্যের কাছে গেলেন সে ব্যাপারে বিস্তারিত জেনে তাদের ব্যাপারে দলীয় ফোরামে আলোচনা করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আলমগীর হান্নান/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :