হালদা দূষণ : পরিবেশমন্ত্রীকে দুষলেন আ.লীগ নেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৭:৫৮ পিএম, ২৩ জুন ২০১৮

দক্ষিণ এশিয়ায় কার্প জাতীয় মাছের অন্যতম প্রজননকেন্দ্র হালদা নদী দূষণের জন্য স্থানীয় এমপি ও বনমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদের নিষ্ক্রিয়তাকে দায়ী করেছেন ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

শনিবার চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এক মানববন্ধন থেকে এ অভিযোগ তোলা হয়। দুপুরে হাটহাজারী বাসস্ট্যান্ড চত্বরে হালদা নদীতে শিল্পবর্জ্যের আগ্রাসনের প্রতিবাদে স্থানীয় নাগরিক সমাজ এ মানববন্ধন করে।

মানববন্ধনে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ এর সদস্য মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, ‘আনিস সাহেব সরকারের মন্ত্রী হলেও তিনি উন্নয়ন চান না; যাতে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়। তিনি উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের বিরোধী দিয়ে সাজিয়েছেন; যাতে সরকারের কোনো উন্নয়ন এ হাটহাজারীতে না হয়। অথচ উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী কোটি কোটি টাকা দিচ্ছেন।’

তিনি আরও বলেন. ‘পেপার মিল, ট্যানারি, বড় বড় মুরগির ফার্ম, মিলকারখানার বর্জ্য হালদাতে গিয়ে পানি দূষণ করছে। পানিতে মাত্রাতিরিক্ত অ্যামোনিয়ার দরুণ অক্সিজেনের মাত্রা কমে গিয়ে মাছ মরে যাচ্ছে, কিন্তু কর্তৃপক্ষ তা দেখছে না। তাই অনতিবিলম্বে পরিকল্পনা মাফিক কাজ করে সরকারের উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রেখে হাটহাজারীবাসীকে জলাবদ্ধতা হতে উদ্ধার এবং হালদাকে রক্ষা করতে হবে।’

jagonews24

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা মো. মিজানুর রহমান, উপজেলা যুবলীগ নেতা এম. এ রাসেল, মেখল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান এম এ মালেক, মো. হারুন, মো. জাবেদ, এস এম আবু বক্কর, সাজ্জাদ মেম্বার, জুয়েল বাদশা, রহিম মুন্না, মো. জাকির হোসেন, মো. এনাম, ইকবাল হোসেন, কামাল উদ্দীন, মো. করিম, মো. রুবেল, কলিম সিকদার প্রমুখ।

উল্লেখ্য, এশিয়ার অন্যতম প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে ব্যাপক দূষণ ছড়িয়ে পড়েছে। প্রতিদিন ভেসে উঠছে অসংখ্য মরা মাছ আর জলজ প্রাণী। হুমকির মুখে পড়েছে জীববৈচিত্র্য। টানা ভারী বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের সঙ্গে বিভিন্ন কারখানার বর্জ্য মিশে বিভিন্ন শাখা খাল দিয়ে হালদা নদীতে মিশে যাচ্ছে। এতে পানিতে অক্সিজেনের পরিমাণ কমে যাচ্ছে। পানি দূষিত হয়ে নদীর নানা প্রজাতির মাছ মরে ভেসে উঠছে।

আবু আজাদ/জেএইচ/আরআইপি