৭ দিন ধরে বিদ্যুৎ নেই সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ০১:৪০ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০১৮

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে গত সাত দিন ধরে বিদ্যুৎ না থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন রোগী ও তাদের স্বজনরা। বিশেষ করে অস্ত্রোপচারের রোগীরা পড়েছেন চরম বিপাকে। সিজারিয়ান মা ও নবজাতক অসহনীয় গরমে অতিষ্ট হয়ে উঠেছেন।

এদিকে হাসপাতালের এমন অবস্থা দেখে ফিরে যাচ্ছেন অনেক রোগী।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শেফালি খাতুনের স্বামী মহব্বত আলি জানান, তিনদিন আগে তার স্ত্রীকে সিজার করার জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলে স্ত্রীকে সিজার করাতে হলে জেনারেটরে তেল কিনে দিতে হবে। তিনি তেল কিনে দিলে তারপরই চিকিৎসকরা তার স্ত্রীকে সিজার করেন।

রোগীর আত্মীয় সিদ্দিকুর রহমান জানান, তার এক আত্মীয় সাতক্ষীরা সদর হাসপাতলে ১০ দিন আগে ভর্তি হয়েছেন। তখন থেকেই দেখছেন সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে বিদ্যুৎ ও পানি নেই। একটা জেলা শহরের হাসপাতালের অবস্থা এমন হতে পারে না বলে অভিযোগ করেন তিনি।

সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডা. তওহীদুর রহমান জানান, গত এক সপ্তাহ আগে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের ট্রান্সফরমারটি নষ্ট হয়ে যায়। সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের প্রয়োজন ১৫০ কেভি পাওয়ার ট্রান্সফরমার। কিন্তু বিদ্যুৎ অফিসে বারবার বলা হলেও তারা ৫০ পাওয়ার কেভির বেশি ট্রান্সফরমার দিতে পারছে না।

এ বিষয়ে খুলনা স্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদফতরে ১৫০ পাওয়ার কেভি ট্রান্সফরমার চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। নতুন ট্রান্সফরমারটি পাওয়া গেলে অপারেশনসহ যাবতীয় কাজ করা যাবে বলে তিনি জানান।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে হাসপাতালে ২৫০-৩০০ জন রোগী ভর্তি আছে। দূর-দূরান্ত থেকে অপারেশন করতে আসা রোগীরা ফিরে যাচ্ছে। এছাড়া হাসপাতালের অপারেশন আপাতত বন্ধ আছে।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. ইফতেখার হোসেন বলেন, রোগীদের দুর্ভোগের কথা চিন্ত করে সাতক্ষীরা বিদ্যুৎ অফিস থেকে ৫০ কেভি পাওয়ারের একটি ট্রান্সফরমার লাগানো হয়েছে। নতুন ১৫০ কেভি ট্রান্সফরমারটি দু’একদিনের মধ্যে হাতে পাওয়া যাবে। নতুন ট্রান্সফরমাটি হাতে পেলে আগের মতো যাবতীয় কার্যক্রম শুরু হবে।

আকরামুল ইসলাম/এফএ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :