ধলাহার ইউনিয়নের জামায়াতের আমিরসহ ১৯ নেতাকর্মী গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৫:১২ পিএম, ১১ অক্টোবর ২০১৮

জয়পুরহাট সদর উপজেলায় জামায়াতের আমির আসাদুজ্জামান (৫৫) সহ ১৯ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশের দাবি, নাশকতার পরিকল্পনা করতে তারা গোপন বৈঠক করছিল। এসময় তাদের কাছ থেকে বেশ কিছু জিহাদি বই উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার সকালে ধলাহার উচ্চ বিদ্যালয় জামে মসজিদের ভেতর থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। আটক জামায়াতের আমির আসাদুজ্জামান ধলাহার মালেক পাড়া গ্রামের মৃত মোজাম্মেল হকের ছেলে।

গ্রেফতারকৃত অন্য নেতাকর্মীরা হলেন জয়পুরহাট সদর উপজেলার কইকুড়ি গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে সফিকুল ইসলাম (৪৫), মৃত ছুমির উদ্দিনের ছেলে আমজাদ হোসেন (৫৫), রামকৃষ্ণপুর গ্রামের ওসমান গনির ছেলে হুজায় হোসেন (৫০), শেখপাড়া গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে সিরাজুল ইসলাম (৩৫), মৃত সাহারুদ্দিনের ছেলে রজলুর রহমান (৬০), বালিয়াতর গ্রামের মৃত মেছের উদ্দিনের ছেলে আব্দুস সালাম (৫৫), শরিফ উদ্দিন মন্ডলের ছেলে তোফাজ্জল হোসেন (৪৪), ছফের আলীর ছেলে সাদেক মন্ডল (৫০), ধলাহার গ্রামের মৃত আইন উদ্দিনের ছেলে জি এম হোসেন ওরফে জিম (৪০), মৃত আব্দুল গনির ছেলে নেছার উদ্দিন (৫২), জিয়াউর রহমানের ছেলে বাবু মিয়া (২২), থিপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে শোয়েব ইসলাম (৩৮), জালাল উদ্দিনের ছেলে এনামুল হক (৪২), রঘুনাথপুর গ্রামের মৃত আবু বক্করের ছেলে কাওসার রহমান (৩২), ইসমাইল হোসেনের ছেলে ফেরদৌস আলম (৪৮), কল্যানপুর গ্রামের আকবর দেওয়ানের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৩২), মোফাজ্জল হোসেনের ছেলে রবিউল ইসলাম (৪২) ও আটঠোকা গ্রামের মৃত সামসুদ্দিনের ছেলে মোতাহার হোসেন (৩৬)।

জয়পুরহাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম জানান, সকালে মসজিদের ভেতরে জেলার বিভিন্ন এলাকার বেশ কিছু মানুষ একত্রিত হয়ে গোপন পরিকল্পনা করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে তাদের আটক করা হয়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বেশ কিছু কর্মী পালিয়ে গেলেও ধলাহার ইউনিয়ন জামায়াতের আমির আসাদুজ্জামানসহ ১৯ জন জামায়াতের নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে বেশ কিছু জিহাদি বই উদ্ধার করা হয়।

আটকদের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

রাশেদুজ্জামান/আরএ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :