মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ অব্যাহত রয়েছে : এলিস ওয়েলস

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কক্সবাজার
প্রকাশিত: ০৮:২৩ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০১৮

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের পাশে থাকবে উল্লেখ করে দেশটির দক্ষিণ ও মধ্য-এশিয়াবিষয়ক প্রধান উপ-সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী এলিস ওয়েলস বলেছেন, রোহিঙ্গারা অধিকার, সম্মান ও নিরাপত্তার সঙ্গে নিজ দেশ মিয়ানমারে ফিরে যাব বলে যুক্তরাষ্ট্র প্রত্যাশা করে। এ লক্ষে রোহিঙ্গাদের অধিকার ফিরিয়ে দিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় একযোগে কাজ করছে। যেখানে যুক্তরাষ্ট্রও রয়েছে ।

সোমবার বিকেলে কক্সবাজারের কুতুপালং ট্রানজিট ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মার্কিন তিনি এসব কথা বলেন।

এলিস ওয়েলস আরও বলেন, মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ অব্যাহত রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রও এ চাপ প্রয়োগে রয়েছে। মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ তৈরির প্রচেষ্টা চলছে।

সোমবার সকালে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের ঘুমধুমের কোনারপাড়া শূন্যরেখায় আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে যান এলিস ওয়েলস। সেখানে তিনি রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর তিনি কুতুপালং ট্রানজিট ক্যাম্প পরিদর্শন করেন এবং সেখানে নতুন আসা বেশকিছু রোহিঙ্গার সঙ্গে আলাপ করেন। এছাড়া এলিস রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সেবা সংস্থার কর্মকাণ্ড পরিদর্শন করেন এবং কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন।

এর আগে রোববার বিকেলে কক্সবাজার পৌঁছান যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক উপ-সহকারী মন্ত্রী এলিস ওয়েলস। ওইদিন বিকেলে তিনি শরণার্থী, ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন বিষয়ক কমিশনার মো. আবুল কালামের সঙ্গে বৈঠক করেন।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্টের পর থেকে মিয়ানমারের জাতিগত নিধনের হাত থেকে প্রাণ বাঁচতে ৭ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা পালিয়ে কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফের আশ্রয় নিয়েছেন। নব্বই দশকের পর থেকে আসা রোহিঙ্গাসহ কক্সবাজারের ৩০টি ক্যাম্পে বর্তমানে ১১ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা অবস্থান করছেন। যাদের নিজ দেশে সম্মানজনকভাবে ফেরাতে কাজ করছে বিশ্ব সম্প্রদায়।

সায়ীদ আলমগীর/আরএআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :