দুই প্রতিষ্ঠান থেকে সরকারি বেতন তোলেন লুৎফর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৮:৫৪ পিএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৮

বরিশালের মুলাদী উপজেলায় তথ্য গোপন করে লুৎফর রহমান ভুইয়া নামের এক কর্মচারীর বিরুদ্ধে দুই প্রতিষ্ঠান থেকে সরকারি বেতন-ভাতা উত্তোলন করে আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের রামারপোল গ্রামের সফিকুল ইসলাম ভূইয়ার ছেলে একই সঙ্গে দুই সরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে বেতন-ভাতা উত্তোলন করেছেন।

লুৎফর রহমান ভুইয়া উপজেলার যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের ন্যাশনাল সার্ভিসের অধীনে মাসিক ৬ হাজার টাকা করে ভাতা উত্তোলন করেন। একই সঙ্গে তিনি রামারপোল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী পদে থেকে সরকারি বেতন-ভাতা উত্তোলন করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

উপজেলা যুব উন্নয়ন অধিদফতর অফিস সূত্রে জানা গেছে, লুৎফর রহমান ভূইয়া ২০১৬ সালের জুন মাসে ন্যাশনাল সার্ভিসের যোগদান করে রামারপোল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সংযুক্ত শিক্ষক হিসেবে পাঠদান শুরু করে এবং ওই সার্ভিসের নিয়ম অনুযায়ী সরকারি ভাতা উত্তোলন করেন।

উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালের জুন মাসে ওই বিদ্যালয়ে দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী নিয়োগে আবেদন করে লুৎফর রহমান নিয়োগ পান এবং ওই মাস থেকে নিয়মিত বেতন-ভাতা উত্তোলন করেন। একই ব্যক্তি দুই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সরকারি টাকা উত্তোলন করতে না পারলেও লুৎফর রহমান ভূইয়া অবৈধভাবে তথ্য গোপন করে নিয়মিত বেতন-ভাতা উত্তোলন করছেন। এমনকি যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরে মাসিক ২ হাজার করে জামানত হিসেবে জমা রাখা ৪৮ হাজার টাকাও তিনি উত্তোলন করে নিয়েছেন বলে জানিয়েছে যুব উন্নয়ন অফিসার।

এ ব্যাপারে লুৎফর রহমান জানান, দুই প্রতিষ্ঠান থেকে সরকারি বেতন-ভাতা উত্তোলনে বিধি নিষেধ রয়েছে বিষয়টি আমার জানা ছিল না।

সাইফ আমীন/এমএএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :