মির্জা ফখরুলকে সমর্থকদের টাকার মালা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ঠাকুরগাঁও
প্রকাশিত: ০৮:০০ পিএম, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮

ঠাকুরগাঁও-১ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গলায় টাকার মালা পরিয়ে দিয়েছেন স্থানীয় সমর্থকরা। গতকাল রোববার ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নে শিবগঞ্জ সিনিয়র দাখিল মাদরাসা মাঠে আয়োজিত জনসভায় ওই মালা পরানো হয়।

মির্জা ফখরুলের গলায় টাকার মালা পরানোর একটি ভিডিও এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এনিয়ে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

এ বিষয়ে সোমবার জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান বলেন, দলের স্থানীয় সমর্থকরা খুশি হয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় সহায়তার জন্য মির্জা ফখরুলের গলায় টাকার মালা পরিয়ে দেন। ১০০ ও ৫০০ টাকার মোট ১০টি মালা তার গলায় পরানো হয়। এর আগে ২০০১ সালে একইভাবে ঠাকুরগাঁওয়ে একটি অনুষ্ঠানে মির্জা ফখরুলকে টাকার মালা পরানো হয়েছিল বলে জানান তৈমুর রহমান।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গতকাল রোববার বিকেলে মাদরাসা মাঠের জনসভায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর উপস্থিত হওয়ার পর ধানের শীষের স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে। তিনি মঞ্চে ওঠার পরপরই স্থানীয় কয়েকজন টাকার মালা নিয়ে আসেন এবং ফখরুলের গলায় পরিয়ে দেন। এরপর সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুল হামিদের সভাপতিত্বে মির্জা ফখরুল বক্তব্য দেন।

Thakurgaon-Mirza-Fakhrul-1

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষের শেষ আশা ভরসার স্থল সেনাবাহিনী। সেনাবাহিনী মাঠে নামলে আমরা আশ্বস্ত হই, আস্থা পাই। আমরা আশা করব জনগণের এই আস্থার মর্যাদা সেনাবাহিনী রক্ষা করবে। জনগণ যা চায় তাই করবে। দেশে যেন অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হয় তার ব্যবস্থা করবে।

ফখরুল বলেন, বাংলাদেশে এখন সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করা; ইনসাফ প্রতিষ্ঠা করা। কোথাও কোনো ন্যায় বিচার ও ইনসাফ নাই। আওয়ামী লীগ সরকারের অত্যাচারে মানুষ অত্যাচারিত-নির্যাতিত-জর্জরিত হয়ে গেছে। লুট করে শেষ করে দিয়েছে; শেয়ার বাজার লুট করেছে, ব্যাংক থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করে নিয়ে গেছে। প্রত্যেকটি ব্যাংক এখন দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে।

জনসভায় আরও বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পয়গাম আলী, আবদুল হান্নান হান্নু, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম মজিদুল ইসলাম, সদর থানা যুবদল সাংগঠনিক সম্পদাক রেজাউল করিম লিটন, জেলা ছাত্রদল সভাপতি মো. কায়েস, জামালপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

আরএআর/পিআর